Wednesday, July 24, 2024
বাড়িখেলাস্কটল্যান্ড ম্যাচ নিয়ে হেইজেলউডের মন্তব্য রসিকতা ছিল, আশা ইংল্যান্ড কোচের

স্কটল্যান্ড ম্যাচ নিয়ে হেইজেলউডের মন্তব্য রসিকতা ছিল, আশা ইংল্যান্ড কোচের

স্যন্দন ডিজিটেল ডেস্ক, ১৩ জুন: টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সুপার এইটে খেলা এরই মধ্যে নিশ্চিত করে ফেলেছে অস্ট্রেলিয়া। ‘বি’ গ্রুপ থেকে পরের ধাপে যাওয়ার লড়াইয়ে আছে ইংল্যান্ড ও স্কটল্যান্ড।ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ভেসে যাওয়ার ম্যাচের পর নামিবিয়া ও ওমানকে হারানো স্কটিশরা দেখছে সুপার এইটে খেলার স্বপ্ন। তিন ম্যাচে ৫ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলে দুইয়ে থাকা দলটির রান রেটও বেশ ভালো, ২.১৬৮।দুই ম্যাচ খেলে এখনও জয়ের দেখা পায়নি ইংল্যান্ড। শিরোপাধারীদের পয়েন্ট ১ ও রান রেট -১.৮০০। গত ওয়ানডে বিশ্বকাপের মতো টুর্নামেন্ট থেকে আগেভাগে বাদ পড়ার দুয়ারে দাঁড়িয়ে তারা।

গ্রুপ পর্বে নিজেদের শেষ দুই ম্যাচে ওমান ও নামিবিয়ার বিপক্ষে কেবল জিতলেই হবে না ইংল্যান্ডের, রান রেটে পেছনে ফেলতে হবে স্কটিশদের। স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে ‘বি’ গ্রুপের সবশেষ ম্যাচটি আগামী রোববার খেলবে অস্ট্রেলিয়া। ততদিনে পরিষ্কার হয়ে যাবে, সুপার এইটে যেতে কী করতে হবে স্কটল্যান্ডকে।ইংল্যান্ডের জন্য পরিস্থিতি যতটা সম্ভব কঠিন করে তোলার চেষ্টা কি করবে অস্ট্রেলিয়া, নামিবিয়ার বিপক্ষে জয়ের পর এমন প্রশ্নের উত্তরে হেইজেলউড বলেন, “হ্যাঁ, আমার তাই মনে হয়।” তার এমন মন্তব্য মনে করিয়ে দেয় ১৯৯৯ বিশ্বকাপের একটি ম্যাচের কথা।

ওই বিশ্বকাপে নিউ জিল্যান্ডকে বাদ করতে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে রান তাড়ায় ইচ্ছাকৃতভাবে মন্থর ব্যাটিং করেছিল স্টিভ ওয়াহর অস্ট্রেলিয়া। ওল্ড ট্রাফোর্ডে ১১১ রানের লক্ষ্যে ২৫ ওভারে ৮৩ রান তুলে ফেললেও পরের ২৮ রান তুলতে তারা খেলে আরও ১৫.৪ ওভার। এবার এমনটা করলে অবশ্য আইসিসির আচরণবিধি ভাঙার অভিযোগ উঠতে পারে অধিনায়ক মিচেল মার্শের বিরুদ্ধে। ‘অনুপযুক্ত কৌশল’ নিয়ে ম্যাচে কারসাজি করার জন্য দুই ম্যাচে নিষিদ্ধ হতে পারেন তিনি।তবে অস্ট্রেলিয়া এমন কিছু করবে বলে মনে করেন না মট। নিউ সাউথ ওয়েলসে হেইজেলউডের কোচ ছিলেন তিনি। তাই এই পেসার সম্পর্কে খুব ভালো জানাশোনা থাকার কথা জানিয়ে মট বললেন, রসিকতা করে মন্তব্যটি করেছে হেইজেলউড।

“আমি জশকে খুব ভালোভাবে চিনি এবং তার সততা সম্পর্কে জানি। সে খুব ভালো রসিকতা করতে পারে এবং আশা করি, তার ওই মন্তব্য মজার জন্যই ছিল। আমি সত‍্যিই মনে করি না যে, এটি কখনও হবে। অস্ট্রেলিয়ায় বেড়ে ওঠা এবং প্রতিটি ম্যাচ জেতার ইচ্ছা থাকায় আমি নিশ্চিত তারা সবার আগে থাকতে চাইবে। আমি খুবই আশাবাদী যে, এটা একজন সত্যিকারের ভালো মানুষের কোনো কিছু না ভেবেই করা মন্তব্য ছিল, যিনি মজা করেছেন।”হেইজেলউড অবশ্য পরে জোর দিয়ে বলেছেন, নিজেদের চাওয়া যেমনই হোক, মাঠে নেমে নিজেদের স্বাভাবিক খেলাটাই খেলবেন তারা।“বিষয়টা বেশ মজার হবে। দল হিসেবে আমরা এর আগে কখনো এমন অবস্থানে ছিলাম না, আমার মনে হয় না, তাই আমাদের আলোচনা হোক বা না হোক, আমরা আজ রাতে যেভাবে খেলেছি সেভাবেই আবার খেলার চেষ্টা করব। এটা অন্যদের ব্যাপার, আমার নয়।”ওমানের বিপক্ষে শুক্রবার মাঠের লড়াইয়ে নামবে ইংল্যান্ড। পরদিন নামিবিয়ার মুখোমুখি হবে দুইবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য