Wednesday, June 29, 2022
বাড়িজাতীয়নাগাল্যান্ড : এনপিএফ-এর ২১ বিধায়ক একীভূত মুখ্যমন্ত্রী নেইফিউ রিওর এনডিপিপি-তে, ইউডিএ-র শক্তি...

নাগাল্যান্ড : এনপিএফ-এর ২১ বিধায়ক একীভূত মুখ্যমন্ত্রী নেইফিউ রিওর এনডিপিপি-তে, ইউডিএ-র শক্তি বেড়ে ৪২

কোহিমা, ৩০ এপ্রিল (হি.স.) : নাগাল্যান্ডে বড় রাজনৈতিক সুনামি। ‘নাগা পিপলস ফ্রন্ট’ (এনপিএফ)-এর ২১ জন বিধায়ক মুখ্যমন্ত্রী নেইফিউ রিওর ‘ন্যাশনাল ডেমোক্ৰ্যাটিক প্ৰগ্ৰেসিভ পাৰ্টি’ (এনডিপিপি)-তে একীভূত হয়ে গেছেন। সম্ভবত নাগাল্যান্ডের রাজনৈতিক ইতিহাসে এ ধরনের ঘটনা প্রথম। ২৫ এনপিএফ বিধায়কের মধ্যে এক সঙ্গে ২১ জনই দলত্যাগ করার ঘটনা প্ৰায় বিরল। দলবদলের নেতৃত্বে রয়েছেন বিধানসভায় বিরোধী (এনপিএফ) দলনেতা তথা প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী টিআর জেলিয়াং। শুক্রবার রাতে হোটেল ভিভোয় এনডিপিপির মুখপাত্র মেরেন্তোশি জামির একীভূত হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

আজ শনিবার এনডিপিপি সভাপতি চিংওয়াং কন্যাক বিস্তৃতভাবে জানান, ৬০ আসনের রাজ্য বিধানসভায় সর্বশেষ পরিস্থিতিতে আঞ্চলিক দল এনপিএফ-এর শক্তি চার সদস্যে নেমে এসেছে। এনডিপিপি, যার আগে ২১ জন বিধায়ক ছিলেন। এখন বেড়ে হয়েছে মোট ৪২ জন সদস্য। মোদ্দা কথায়, ক্ষমতাসীন ইউনাইটেড ডেমোক্রেটিক অ্যালায়েন্স (ইউডিএ) সরকারে ৪২ জন এনডিপিপি, ১২ জন বিজেপি, চার জন এনপিএফ এবং দুজন নির্দলীয় বিধায়ক রয়েছেন৷ কন্যাক বলেন, ইউডিএ সরকার এখন বিরোধী-শূন্য। ভবিষ্যতেও বিরোধীহীন থাকবে, জোরের সঙ্গে বলে তিনি।

এনডিপিপি সভাপতির কথায় বোঝা গেছে, দলত্যাগের গোটা ঘটনা সংগঠিত হয়েছে বিধানসভায় বিরোধী (এনপিএফ) দলনেতা তথা প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী টিআর জেলিয়াঙের নেতৃত্বে। যে চার এনপিএফ বিধায়ক এখনও পার্টিতে রয়েছেন তাঁরা কুজোলুজো (আজো) নিনু, ডা. নাগাংশি কে আও, খ্রিয়েহু লিজিয়েৎসু এবং কেঝিয়েনি খালো। প্রসঙ্গত, প্রাক্তন রাজ্যসভার সদস্য এবং এনপিপিএফ-এর তৎকালীন মহাসচিব কেজি কেনেও এনডিপিপি-তে যোগদান করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

বুধবার ফুৎসেরমি গ্রামে এনপিএফ সভাপতি ড. শুরোজেলি লিয়াজিয়েৎসু দলীয় এক সভায় ঘোষণা করেছিলেন, আসন্ন ২০২৩ সালের বিধানসভা নির্বাচনে তাঁর দল একক শক্তিতে লড়বে৷ এর পরই বিশাল এই ধস নামিয়েছেন বিধানসভায় বিরোধী (এনপিএফ) দলনেতা তথা প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী টিআর জেলিয়াং।

এদিকে শুরোজেলি লিয়াজিয়েৎসুর ঘোষণার পর, এনডিপিপি এবং বিজেপি জরুরি ভিত্তিতে যৌথ বৈঠকে বসে। ওই বৈঠকে আসন বাটোয়ারা নিয়ে আলোচনা হয়। সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে ২০২৩ সালে ৬০ আসনের বিধানসভা নির্বাচনে ৪০টি কেন্দ্রে এনডিপিপি এবং ২০টিতে বিজেপি প্রার্থী দেবে।

এক প্রশ্নের জবাবে এনডিপিপি সভাপতি চিংওয়াং কন্যাক আরও বলেন, রাজনৈতিক দলগুলোর বিধায়করা অন্য কোন দলে একীভূত হবেন তা নির্ভর করে সংশ্লিষ্টদের ওপর। এনডিপিপি তাঁদের প্রলোভিত করেনি। স্বইচ্ছায় তাঁরা এনডিপিপির নেইফিউ রিও নেতৃত্বাধীন ইউনাইটেড ডেমোক্রেটিক অ্যালায়েন্স (ইউডিএ) সরকারের কাজকর্ম দেখে দল বদল করেছেন। তিনি বলেন, বিধানসভার অধ্যক্ষ শেয়ারিংগাইন দলত্যাগীদের ইস্তফাপত্র স্বীকার করেছেন। সভাপতি চিংওয়াং কোনিয়াক বলেন, ‘আমরা একে অপরকে শক্তিশালী করতে চাই। কারণ একসঙ্গে কাজ করার জন্য একটি মজবুত আঞ্চলিক এবং জাতীয় রাজনৈতিক দলের প্রয়োজন।’

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য