Sunday, December 4, 2022
বাড়িজাতীয়চিকিৎসকদের প্রচেষ্টা ব্যর্থ, প্রয়াত কালজয়ী কার্টুনস্রষ্টা নারায়ণ দেবনাথ

চিকিৎসকদের প্রচেষ্টা ব্যর্থ, প্রয়াত কালজয়ী কার্টুনস্রষ্টা নারায়ণ দেবনাথ


কলকাতা, ১৮ জানুয়ারি (হি.স.): চিকিৎসকদের সমস্ত প্রচেষ্টা ব্যর্থ হয়ে গেল, প্রয়াত হলেন বিভিন্ন কালজয়ী কার্টুনের স্রষ্টা নারায়ণ দেবনাথ। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৯৬ বছর। মঙ্গলবার সকাল সওয়া ১০টা নাগাদ দক্ষিণ কলকাতার মিন্টো পার্কের কাছে একটি বেসরকারি হাসপাতালে প্রয়াত হন তিনি। হাসপাতাল সূত্রে খবর, মঙ্গলবার সকাল থেকেই হৃদ্‌যন্ত্রে সমস্যা হচ্ছিল প্রবীণ এই কার্টুন শিল্পীর। তাঁর অবস্থা আশঙ্কাজনক হয়ে পড়ে। তাঁর রক্তচাপ ওঠানামা করছিল। সব ধরনের চেষ্টা করা হয়। কিন্তু চিকিৎসায় সাড়া দেননি নারায়ণ দেবনাথ। কষ্ট হচ্ছিল শ্বাস নিতেও। এরপর সওয়া ১০টা নাগাদ শেষনিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি।

গত ২৪ ডিসেম্বর নারায়ণ দেবনাথকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ফুসফুস থেকে কিডনির সমস্যা বাড়ছিল। রক্তে অক্সিজেনের মাত্রা কমছিল। অবস্থার বিপজ্জনক অবনতি হওয়ায় ১৬ জানুয়ারি তাঁকে ভেন্টিলেশনে দেওয়া হয়। বয়সজনিত নানা সমস্যায় ভুগছিলেন কয়েক বছর ধরেই। হিমোগ্লোবিনের পরিমাণ কমে যাওয়ায় গত রবিবার রাতেই তাঁকে দুই ইউনিট রক্ত দেওয়া হয়। শরীরের অন্যান্য প্যারামিটার স্থিতিশীল ছিল। কিন্তু, মঙ্গলবার আচমকাই খারাপ হয়ে যায় নারায়ণ দেবনাথের শারীরিক অবস্থা। এর আগেও একাধিক বার হাসপাতালে ভর্তি করাতে হয়েছিল তাঁকে। চিকিৎসার ভার নিয়েছিল রাজ্য সরকার। তৈরি হয়েছিল চিকিৎসকদের একটি আলাদা দল। কিন্তু এ বার আর বাড়ি ফেরা হল না ‘হাঁদা, ভোঁদা’, ‘বাঁটুল’,-দের স্রষ্টার।

১৯২৫ সালে হাওড়া জেলার শিবপুরে জন্ম নারায়ণ দেবনাথের। স্কুলের পাঠ চুকিয়ে তিনি আর্ট কলেজে ভর্তি হন। কিন্তু দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের ডামাডোলে বন্ধ হয়ে যায় আর্ট কলেজে পড়া। তার পর কয়েকটি বিজ্ঞাপন সংস্থার হয়ে কাজ করেন। নারায়ণ দেবনাথের অমর সৃষ্টি ‘বাটুল দি গ্রেট’, ‘হাঁদা ভোঁদা’, ‘নন্টে ফন্টে’, ‘বাহাদুর বেড়াল’ প্রভৃতি। ২০১৩-য় তাঁকে সাহিত্য আকাদেমি পুরষ্কার এবং বঙ্গবিভূষণ পুরস্কারে ভূষিত করা হয়। ২০২১ সালে পান পদ্মশ্রী।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য