Wednesday, February 8, 2023
বাড়িবিশ্ব সংবাদজার্মানিতে খনি বিরোধী প্রতিবাদ থেকে আটক গ্রেটা থুনবার্গ, পরে মুক্তি

জার্মানিতে খনি বিরোধী প্রতিবাদ থেকে আটক গ্রেটা থুনবার্গ, পরে মুক্তি

স্যন্দন ডিজিটেল ডেস্ক,১৮ জানুয়ারি:

জার্মানিতে একটি কয়লা খনি সম্প্রসারণের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানানোর সময় প্রখ্যাত সুইডিশ জলবায়ুকর্মী গ্রেটা থুনবার্গকে আটক করা হয়েছিল, পরে পরিচয় পরীক্ষার পর তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়। ওই খনিটি সম্প্রসারণ করার জন্য স্থানীয় একটি গ্রাম ধ্বংস করা হচ্ছে, এর প্রতিবাদ জানাতেই মঙ্গলবার অন্যান্য পরিবেশ আন্দোলনকারীদের সঙ্গে সেখানে গিয়েছিলেন থুনবার্গ। জার্মানির পশ্চিমাঞ্চলীয় রাজ্য নর্থ রাইন-ওয়েস্টফেলিয়ার উন্মুক্ত কয়লা খনি গার্জভাইলার টু এর সম্প্রসারণের জন্য প্রায় ৯ কিলোমিটার দূরের গ্রাম লুজএহাট খালি করে ফেলা হচ্ছে। খনিটির মালিক কোম্পানি সঙ্গে সরকারের সমঝোতা হয়েছে, কয়লা থেকে দ্রুত সরার এবং ধ্বংসের জন্য নির্ধারিত পাঁচটি গ্রাম রক্ষার বিনিময়ে তারা লুজএহাট গুড়িয়ে দিতে পারবে।আন্দোলনকারীরা বলছেন, জার্মানির আর লিগনাইট বা বাদামি কয়লা খনন করা উচিত নয়, এর বদলে তাদের নবায়নযোগ্য জ্বালানি সম্প্রসারণের দিকে মনোযোগ দেওয়া উচিত।থুনবার্গ উন্মুক্ত ওই কয়লা খনিটিতে প্রতিবাদে শামিল হয়েছিলেন। খনির প্রান্ত থেকে প্রতিবাদকারীরা সরে না গেলে আন্দোলনকারীদের দলটিকে জোর করে সরানো হবে বলে সর্তক করেছিল পুলিশ। এরপরই থুনবার্গসহ অন্যান্যদের আটক করে নিয়ে যায় তারা।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, গত সপ্তাহে পরিত্যক্ত ওই গ্রামটির বিভিন্ন ভবনে অবস্থান নেওয়া আন্দোলনকারীদের সরিয়ে নেয় দাঙ্গা পুলিশ, এ সময় তাদের সঙ্গে বেশ কয়েকটি বুলডোজার ছিল। রোববার শুধু অল্প কয়েকজন গাছে ও ভুগর্ভস্থ সুড়ঙ্গে আশ্রয় নিয়ে ছিল।মঙ্গলবার থুনবার্গসহ যে প্রতিবাদকারীরা সেখানে রয়ে গিয়েছিলেন তারা খনিটির কাছে অবস্থান ধর্মঘট শুরু করেন।রয়টার্সের ফুটেজ অনুযায়ী, এক পুলিশ সদস্য আন্দোলনকারীদের দলটিকে উদ্দেশ্য করে বলেন, “পরিচয় পরীক্ষার জন্য আপনাদের নিতে আমরা শক্তি ব্যবহার করতে যাচ্ছি, তাই অনুগ্রহ করে সহযোগিতা করুন।”  এরপর তিন পুলিশ কর্মকর্তাদের থুনবার্গকে চ্যাংদোলা করে তুলে নিয়ে যেতে দেখা যায়। তাকে পুলিশ ভ্যানে করে নিয়ে যাওয়া হয়।  জার্মানির আহান শহর পুলিশের এক মুখপাত্র রয়টার্সকে বলেন, “খনির দিকে যেতে থাকা একদল আন্দোলনকারীর অংশ ছিল গ্রেটা থুনবার্গ। তবে তাকে তখন থামানো হয় এবং দলটির অন্যদের সঙ্গে তাকেও বহন করে বিপজ্জনক ওই এলাকা থেকে সরিয়ে পরিচয় যাচাই করার জন্য নিয়ে যাই আমরা।”এক আন্দোলনকারী খনির ভেতরে ঝাঁপিয়ে পড়েছিলেন বলে জানান তিনি।শনিবার লুজএহাটের দিকে মিছিল নিয়ে যাওয়া প্রায় ছয় হাজার প্রতিবাদকারীর উদ্দেশ্যে বক্তব্য রেখেছিলেন থুনবার্গ। নিজের বক্তব্যে খনির এই সম্প্রসারণকে ‘বর্তমান ও ভবিষ্যৎ প্রজন্মের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা’ বলে অভিহিত করেন। “জার্মানি বিশ্বের অন্যতম বৃহত্তম দূষণকারী এবং তাদের জবাবদিহিতা করতে হবে,” বলেন তিনি। 

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য