Monday, February 6, 2023
বাড়িবিশ্ব সংবাদ‘যুদ্ধ’ মন্তব্যের পর পুতিনকে যে পরামর্শ দিল যুক্তরাষ্ট্র

‘যুদ্ধ’ মন্তব্যের পর পুতিনকে যে পরামর্শ দিল যুক্তরাষ্ট্র

স্যন্দন ডিজিটেল ডেস্ক,২৪ ডিসেম্বর: শেষ পর্যন্ত ইউক্রেন সংঘাতকে ‘যুদ্ধ’ বলে মন্তব্য করায় রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনকে বাস্তবতা স্বীকার এবং দেশটি থেকে সেনা প্রত্যাহার করে নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। গতকাল শুক্রবার অনেকটা উপহাসের সুরে যুক্তরাষ্ট্র এ আহ্বান জানায়। খবর এএফপির।পুতিন ফেব্রুয়ারিতে ইউক্রেনে হামলার নির্দেশ দেওয়ার পর থেকে রাশিয়া এই সংঘাতকে দাপ্তরিকভাবে ‘বিশেষ সামরিক অভিযান’ বলে আসছে। কর্তৃপক্ষের দৃষ্টিতে যুদ্ধের মতো বিভ্রান্তিকর পরিভাষা ব্যবহারকে অপরাধ হিসেবে গণ্য করে একটি আইনও করা হয়েছে।কিন্তু গত বৃহস্পতিবার এক সংবাদ সম্মেলনে পুতিন নিজেই ‘যুদ্ধ’ শব্দটি ব্যবহার করেন। তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন, যত দ্রুত সম্ভব এই যুদ্ধের ইতি ঘটবে।যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একজন মুখপাত্র বলেন, ২৪ ফেব্রুয়ারি থেকে যুক্তরাষ্ট্র ও বাকি বিশ্ব জানে, পুতিনের ‘বিশেষ সামরিক অভিযানটি’ ছিল ইউক্রেনের ওপর চাপিয়ে দেওয়া ও অন্যান্য যুদ্ধ। অবশেষে ৩০০ দিন পর পুতিন এটা যে যুদ্ধ, সেটাই বললেন।

তিনি আরও বলেন, ‘বাস্তবতা স্বীকারের দ্বিতীয় পদক্ষেপ হিসেবে ইউক্রেন থেকে সেনা প্রত্যাহারের মাধ্যমে এ যুদ্ধের ইতি টানতে আমরা তাঁর (পুতিন) প্রতি আহ্বান জানাই।’মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলেছে, পুতিন যে পরিভাষাই ব্যবহার করুন না কেন, সার্বভৌম প্রতিবেশীর বিরুদ্ধে রাশিয়ার আগ্রাসনের ফলে প্রাণহানি, ধ্বংস ও বাস্তুচ্যুতির ঘটনা ঘটছে।যুদ্ধ সম্পর্কে ‘মিথ্যা তথ্য’ দেওয়ায় নতুন আইনের অধীন বিরোধী রাজনীতিক ইলিয়া ইয়াশিনকে চলতি মাসের শুরুতে সাড়ে আট বছরের কারাদণ্ড দেন রাশিয়ার একটি আদালত।ইউক্রেনের রাজধানী কিয়েভের পার্শ্ববর্তী বুচা শহরে ইউক্রেনীয়দের গুলিবিদ্ধ ও হাত পিছমোড়া করে বাঁধা মরদেহ উদ্ধারের ঘটনাকে ‘হত্যাযজ্ঞ’ বলেছিলেন। বেশ কিছুদিন নিয়ন্ত্রণে রাখার পর শহরটি ছেড়ে যায় রুশ বাহিনী।এদিকে ‘যুদ্ধ’ শব্দ ব্যবহারের মাধ্যম ‘ভুয়া খবর’ ছড়ানোয় পুতিনের বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ নিতে যাচ্ছেন বলে শুক্রবার জানিয়েছেন বিরোধীদলীয় আইনপ্রণেতা নিকিতা ইউফেরেভ। তিনি ইউক্রেনে রুশ হামলার সমালোচক হিসেবে পরিচিত।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য