Wednesday, June 12, 2024
বাড়িখেলাবিশ্বকাপে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচে জঙ্গি হানার আশঙ্কা !

বিশ্বকাপে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচে জঙ্গি হানার আশঙ্কা !

স্যন্দন ডিজিটেল ডেস্ক, ৩০ মে ;  বিশ্বকাপে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচে জঙ্গি হানার আশঙ্কা। আগামী ৯ জুন আমেরিকার নিউ ইয়র্কের নাসাউ স্টেডিয়ামে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের এই ম্যাচে হামলার হুমকি দিয়েছে আইএসএস-কে জঙ্গি সংগঠন। বৃদ্ধি করা হয়েছে নিরাপত্তা ব্যবস্থা।

জঙ্গি সংগঠনের পক্ষ থেকে একটি ভিডিয়ো প্রকাশ করা হয়েছে। সেখানে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচে হামলা করার জন্য আহ্বান করা হয়েছে। এই হামলার নাম দেওয়া হয়েছে ‘লোন উলফ’। ভিডিয়োয় বলা হয়েছে, যে কেউ এই হামলা করতে পারে।

নাসাউ কাউন্টির পুলিশ কমিশনার প্যাট্রিক রাইডার এই হুমকির কথা জানিয়ে বলেছেন, সব রকম নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হবে। তিনি বলেন, “একটি ভিডিয়োবার্তায় জঙ্গি সংগঠনের পক্ষ থেকে ‘লোন উলফ’ হামলার হুমকি দেওয়া হয়েছে। যেখানে এত বড় একটা ম্যাচ এবং প্রচুর দর্শক আসবেন, সেখানে কোনও কিছুই উড়িয়ে দেওয়া যায় না।”

তবে রাতারাতি এই হুমকি দেওয়া হয়েছে, তা নয়। রাইডার জানিয়েছেন, গত এপ্রিল থেকেই জঙ্গি সংগঠন আইএস-খোরাসান এ রকম হামলার হুমকি দিচ্ছে। কিন্তু এ বারের হুমকি একেবারে নির্দিষ্ট করে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচের জন্য দেওয়া হয়েছে। সম্প্রতি নাসাউ স্টেডিয়ামের উপর একটি ড্রোন দেখা গিয়েছে। তাতে ম্যাচের তারিখ ‘৯/৬/২০২৪’ লেখা। এর পরেই নড়চড়ে বসেছে নিউ ইয়র্ক প্রশাসন।

নিউ ইয়র্কের গভর্নর ক্যাথি হোকুল নিরাপত্তা বৃদ্ধি করার জন্য নিউ ইয়র্ক স্টেট পুলিশকে নির্দেশ দিয়েছেন। তিনি বলেছেন, “এই মুহূর্তে আলাদা করে মানুষের নিরাপত্তা নিয়ে কোনও সংশয় তৈরি হয়নি। তবে আমরা পরিস্থিতির উপর নজর রাখছি। গত কয়েক মাস ধরেই আমাদের প্রশাসন যোগাযোগ রাখছে নাসাউ কাউন্টি এবং ফেডারেল ল এনফোর্সমেন্টের সঙ্গে। নিউ ইয়র্কের মানুষ এবং বাইরে থেকে যাঁরা ওই ম্যাচ দেখতে আসবেন তাঁরা যাতে সুরক্ষিত থাকেন তার ব্যবস্থা আমরা করব।”

নাসাউ কাউন্টির প্রধান ব্রুস ব্লেকম্যানও নিরাপত্তার আশ্বাস দিয়ে বলেছেন, “আমরা কোনও হুমকিই হালকা ভাবে নিই না। এ বারও তার ব্যতিক্রম হবে না। যেখানে খেলা হবে, সেই আইজেনহাওয়ার পার্কের নিরাপত্তা ইতিমধ্যেই বৃদ্ধি করা হয়েছে। অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। স্থানীয় হাসপাতালগুলিকে প্রস্তুত থাকতে বলা হয়েছে।”

কাউন্টির পক্ষ থেকে ফেডারেল অ্যাভিয়েশন অ্যাডমিনিস্ট্রেশনের কাছে অনুরোধ করা হয়েছে, আইজেনহাওয়ার পার্কের উপরে যেন আর ড্রোন ওড়ার অনুমতি না দেওয়া হয়।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য