Saturday, April 13, 2024
বাড়িরাজ্যনির্বাচনকে কেন্দ্র করে তিনটি প্রটোকল গ্রহণ করল নির্বাচন কমিশন

নির্বাচনকে কেন্দ্র করে তিনটি প্রটোকল গ্রহণ করল নির্বাচন কমিশন

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ১২ ফেব্রুয়ারি :  ১৬ ফেব্রুয়ারি ভোটের দিন কাউকে যদি ভোট দিতে যেতে বাধা দেওয়া হয় তাহলে রিপ্রেজেশন অ্যাক্ট অনুযায়ী সেই ব্যক্তির বিরুদ্ধে এক থেকে তিন বছর জেল হবে। সাথে জরিমানাও করা হবে। আর যদি সেই ব্যক্তি সরকারি কর্মচারী হলে তিন বছরে জেল হবে। রবিবার পশ্চিম জেলা শাসক কার্যালয়ের কনফারেন্স হলে আয়োজিত এক সাংবাদিক সম্মেলনে এ কথা জানান রাজ্য নির্বাচন কমিশনের মুখ্য আধিকারি কিরণ গিত্যে। বিধানসভা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে তিনটি প্রটোকল রয়েছে। একটি ৭৮ ঘন্টা প্রটোকল, অপরটি ৪৮ ঘণ্টা প্রটোকল এবং ২৪ ঘন্টা প্রটোকল।

১৩ ফেব্রুয়ারি থেকে এই প্রটোকল গুলি লাগু হয়ে যাবে। প্রটোকল গুলি অনুযায়ী বিভিন্ন হোটেল এবং অতিথি শালা গুলি তল্লাশি চালানো হবে। হোটেলে থাকা ব্যক্তি যদি নির্বাচনী এলাকার না হয়ে থাকে তাহলে ১৪ ফেব্রুয়ারি চারটার আগে হোটেল বা অতিথিশালা ছাড়তে হবে। রাজনৈতিক দলের যদি কোন প্রভারী যদি ত্রিপুরায় থাকে তাহলে তাকে নির্বাচন কমিশনের কাছে দাবি জানাতে হবে কোন দল তাকে নিয়োগ করেছে এবং সে যথাযথ স্থানে থাকতে চায়। ১৪ ফেব্রুয়ারি থেকে চার থেকে পাঁচজন একসাথে ব্যক্তি রাস্তায় চলাফেরা করতে পারবেনা। ভোটের দিন রাজনৈতিক দলের প্রার্থীরা তিনটি গাড়ি এবং পাঁচজন নিয়ে যাতায়াত করতে পারবেন। এবং কোন ভোটারকে গাড়িতে তুলতে পারবে না। ত্রিপুরা – আসাম এবং ত্রিপুরা – মিজোরাম সীমান্তের তিনটি রাস্তা রয়েছে। ১৩ ফেব্রুয়ারি থেকে এই তিনটি রাস্তা সিল করে দেওয়া হবে।

 এর পাশাপাশি আন্তর্জাতিক বাংলাদেশ সীমান্ত সিল করে দেওয়া হবে। নির্বাচনের আগে ৭২ ঘণ্টার মধ্যে কোন বাইক মিছিলের অনুমতি দেওয়া হবে না। সে অনুযায়ী ১৩ ফেব্রুয়ারি থেকে কোন বাইক মিছিলের অনুমতি দেওয়া হবে না। যারা মনোনীত প্রার্থী রয়েছেন তাদের নির্বাচনে কত টাকা ব্যয় করেছে সেই হিসাব চাওয়া হবে ১৩ ফেব্রুয়ারি। এবং এর দায়িত্বে রয়েছেন নির্বাচনী পর্যবেক্ষক টিম। নির্বাচনের ৪৮ ঘন্টা আগে প্রটোকল অনুযায়ী ১৪ ফেব্রুয়ারি বিকাল চারটার পর কোন নির্বাচনী কর্মসূচি করা যাবে না। কোন লাউডস্পীকার ব্যবহার করা যাবে না। কোন দলীয় প্রচার করা যাবে না। ৯, ১০ এবং ১১ ফেব্রুয়ারি রাজ্যে দিব্যাঙ্গন এবং ৮০ ঊর্ধ্বে ভোটাররা ভোট দান করেছেন। প্রায় সাড়ে ৮ হাজার ৫০০ ভোটার গণতান্ত্রিক অধিকার প্রয়োগ করেছে। ৮-১২ ফেব্রুয়ারি পোস্টাল ব্যালট ভোট অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এর মধ্যে ৫৬ হাজারের অধিক পোস্টাল ব্যালট ভোটের জন্য ব্যবহার করেছে।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য