Wednesday, November 30, 2022
বাড়িরাজ্যনেশা রুখতে চাইছে সরকার, বিধানসভায় বললেন মুখ্যমন্ত্রী

নেশা রুখতে চাইছে সরকার, বিধানসভায় বললেন মুখ্যমন্ত্রী

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ২৬ সেপ্টেম্বর : ২০১৮ সালের মার্চ মাসে রাজ্যে বর্তমান সরকার প্রতিষ্ঠার পর বিভিন্ন নেশা সামগ্রী ব্যবহারের ব্যাপকতা পরিলক্ষিত হয় রাজ্যে। আর তার ক্ষতিকর প্রভাব পড়ে ছাত্র ও যুব সমাজের উপর। এই বিষয়টির গুরুত্ব অনুধাবন করে ব্যাপক হারে নেশা বিরোধী অভিযান শুরু করা হয়। রাজ্যে নেশা বিরোধী অভিযান বৃদ্ধি করার ফলে বিপুল পরিমাণ গাঁজা, ফেন্সিডিল, ব্রাউন সুগার, নেশার টেবলেট ইত্যাদি বাজেয়াপ্ত করা হচ্ছে। একই সাথে সংশ্লিষ্ট মামলায় অভিযুক্ত ও নেশা সামগ্রী পাচারকারিদের গ্রেপ্তার করা হচ্ছে। নেশা মুক্ত ত্রিপুরা গড়ার লক্ষ্যে, নেশা মুক্ত ত্রিপুরা গড়ার প্রচারের পাশাপাশি, নিয়মিত ভাবে নেশা বিরোধী অভিযান চালানো হচ্ছে।

২০২২ সালের আগস্ট মাস পর্যন্ত নেশা বিরোধী অভিযানে ব্যাপক সাফল্য পেয়েছে ত্রিপুরা পুলিশ। সোমবার বিধানসভার অধিবেশনে বিধায়ক সুদিপ রায় বর্মণ আনিত দৃষ্টি আকর্ষণী নোটিসের উপর বিবৃতি দিতে গিয়ে এমনটা বলেন মুখ্যমন্ত্রী ডাক্তার মানিক সাহা। তিনি এইদিনের রাজ্য পুলিশের সাফল্যের খতিয়ান তুলে ধরে বলেন ত্রিপুরা পুলিশের ক্রাইম ব্রাঞ্চ এস আই টি গঠন করেছে। যাতে করে সঠিক তদন্তক্রমে নেশা কারবারিদের নেটওয়ার্ক ধংস করা যায় এবং নেশা কারবারের মূল পাণ্ডাদের গ্রেপ্তার করা যায়। আগরতলায় এন সি বি-র একটি শাখা স্থাপনের বিষয়ে কেন্দ্রীয় সরকারের দৃষ্টি আকর্ষণ করা হয়েছে বলেও জানান তিনি। মুখ্যমন্ত্রী ডাক্তার মানিক সাহা এইদিন আরও বলেন নির্বাচনের পূর্বে তিনি যখন বাড়ি বাড়ি ভোট প্রচারে গিয়েছিলেন তখন মহিলারা আবেদন জানিয়েছিল নেশার হাত থেকে তাদের ছেলে মেয়েদের বাঁচানোর জন্য। তিনি আরও বলেন ত্রিপুরা রাজ্যে এত গাঁজার চাষ হয় তিনি আগে কখনো ভাবতেও পারেন নি। এই গাঁজা চাষ বর্তমান সরকার প্রতিষ্ঠা হওয়ার পর শুরু হয়নি। পূর্বতন সরকারের সময়ে এই গাঁজা চাষ ব্যাপক হারে বৃদ্ধি পেয়ছিল বলেও দাবি করেন তিনি।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য