Sunday, April 21, 2024
বাড়িখেলাওয়্যাগনারের অবসর নিয়ে টেইলরের সঙ্গে একমত নন উইলিয়ামসন

ওয়্যাগনারের অবসর নিয়ে টেইলরের সঙ্গে একমত নন উইলিয়ামসন

স্যন্দন ডিজিটেল ডেস্ক, ৬ মার্চ: উইলিয়ামসন নিজে এখন রোমাঞ্চকর একটি সময়ের অপেক্ষায়। নিউ জিল্যান্ডের ইতিহাসের সফলতম ও সর্বকালের সেরা ব্যাটসম্যান বলে বিবেচিত এই ক্রিকেটার খেলবেন তার শততম টেস্ট। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ক্রাইস্টচার্চে শুক্রবার তার সঙ্গে শততম টেস্ট খেলতে নামবেন দলের আরেক মহারথী ও এখনকার অধিনায়ক টিম সাউদিও। তবে এমন মাইলফলক ম্যাচের আগে বুধবার হ্যাগলি ওভালে সংবাদ সম্মেলনে উইলিয়ামসনকে অনেক কথা বলতে হলো চলমান বিতর্ক নিয়ে।অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে এই টেস্ট সিরিজের আগে অবসরের ঘোষণা দেন নিল ওয়্যাগনার। সিরিজের প্রথম টেস্টে যদিও তিনি দলের সঙ্গেই ছিলেন।ওই টেস্টের পর ইএসপিএন-এর ‘অ্যারাউন্ড দা উইকেট’ পডকাস্টে টেইলর বলেন, ওয়্যাগানারকে অবসর নিতে বাধ্য করা হয়েছে এবং নিউ জিল্যান্ড দলের ভেতর সবকিছু ঠিকঠাক নেই।

সেটির জবাবেই উইলিয়ামসন শোনালেন, দলের সঙ্গে ড্রেসিং রুমে কতটা হাসিখুশি ছিলেন ওয়্যাগনার।“আমার মনে হয় না, কাউকে জোর করে অবসরে পাঠানো হয়েছে। গত সপ্তাহে আমাদের অসাধারণ সময় কেটেছে এবং এই প্রতিফলনটা পড়ছিল, যা ছিল অবিশ্বাস্য এক ক্যারিয়ার। ড্রেসিং রুমে চমৎকার সময় কেটেছে আমাদের।”“অবশ্যই সবকিছু নিখুঁত হয়নি। মাঠের পারফরম্যান্স ভালো হলে আরও ভালো হতো। তবে পুরো ব্যাপারটি ছিল এসবের উর্ধ্বে। দলের জন্য একটা অবিশ্বাস্য কিছু সে করেছে! তার স্কিল আমরা দেখেছি, তার পরিসংখ্যান সবাই দেখছে। তবে দলের জন্য যেভাবে হৃদয়-মন উজাড় করে দিয়েছে সে, যেভাবে চেষ্টা করে গেছে নিজেকে ছাড়িয়ে এবং এত দীর্ঘ সময় ধরে এভাবেই এগিয়ে গেছে দলের জন্য, সবই ছিল অসাধারণ। তার কারণেই এই সপ্তাহটি ছিল বিশেষ কিছু এবং আমার মনে হয়, দলের সঙ্গে সেটা ভাগাভাগি করে দারুণ সময় কেটেছে তার।”দলের ভেতর চলমান সমস্যার উদাহরণ হিসেবে একটি ঘটনার কথা উল্লেখ করেছিলেন রস টেইলর। ওয়্যাগনারের শেষ টেস্টে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে হ্যামিল্টনে জুবাইর হামজাকে আউট করার পর মুখে আঙুল চেপে উদযাপন করেছিলেন বাঁহাতি এই পেসার। এছাড়াও আরেকটি উইকেট পতনের পর সবাই গোল হয়ে উদযাপনের সময় কাউকে মধ্যাঙ্গুলি দেখাচ্ছিলেন তিনি।

টেইলেরর কথায় ইঙ্গিত ছিল, অধিনায়ক সাউদির সঙ্গে কোনো সমস্যা চলছে ওয়্যাগনারের। তবে উইলিয়ামসন জানালেন, সমস্যা নয়, বরং অধিনায়কের সঙ্গে মজার একটি লড়াই চলছিল বাঁহাতি পেসারের।“ওরা দারুণ বন্ধু, এখনও আছে এবং ভবিষ্যতেও থাকবে। ড্রেসিং রুমে একটি খুনসুটির কারণে ওরকমটা হয়েছিল (ওয়্যাগনারের মুখে আঙুল ও মধ্যাঙ্গুলি), ওয়্যাগির (ওয়্যাগনার) ফিল্ডিং নিয়ে ফাজলামো চলছিল এবং ওকে ফাইন লেগে পাঠানো হয়েছিল। সেখানে দুর্দান্ত একটি ক্যাচ নেওয়ার পর ওয়্যাগিও তার সুযোগটি নিয়েছে।”

“অবশ্যই সে পরে বুঝতে পেরেছে যে, এটাকে ভিন্নভাবে ব্যাখ্যা করা হয়েছে এবং ব্যাপারটা খুব ভালো দেখায়নি। তবে ওই মূহূর্তে সে মজা হিসেবেই অমনটা করেছিল এবং দলের সবাই তা বুঝতে পেরেছে।”দলের ভেতর ঝামেলার খবরও উড়িয়ে দিলেন ৪০ টেস্টে নিউ জিল্যান্ডকে নেতৃত্ব দেওয়া উইলিয়ামসন।“হ্যাঁ, সবকিছুই বেশ ভালো চলছে। দল হিসবে যেখানে আমরা সবসময়ই উন্নতি করতে চাই ও বিকশিত হতে চাই। বছরের পর বছর ধরেই আমরা এটা চাইছি। অনেক সময়ই বিভিন্ন রকম পরিবর্তনের মধ্য দিয়ে যেতে হয়, ক্রিকেটার ও সাপোর্ট স্টাফদের যাওয়া-আসা চলতেই থাকে।”“(টেইলর) হয়তো আমার চেয়ে বেশি জানে, ঠিক নিশ্চিত নই। তবে আমি যা দেখি, ছেলেরা নিজেদের সবটুকু উজাড় করে দিচ্ছে, দল হিসেবে আরও ভালো হয়ে ওঠার চেষ্টা করছে, দলকে এগিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করছে এবং সব মনোযোগ সেদিকেই।”

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য