Saturday, April 13, 2024
বাড়িখেলালিভারপুলের ‘বিশাল জয়ে’ উচ্ছ্বসিত সালাহ

লিভারপুলের ‘বিশাল জয়ে’ উচ্ছ্বসিত সালাহ

স্যন্দন ডিজিটেল ডেস্ক,১৪ ফেব্রুয়ারি: ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের ম্যাচে সোমবার এভারটনকে ২-০ গোলে হারায় লিভারপুল। অ্যানফিল্ডে ৩৬তম মিনিটে সালাহর গোলে এগিয়ে যাওয়া দল দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে ব্যবধান বাড়ায় কোডি হাকপোর গোলে।লিগে এবার যাচ্ছেতাই সময় কাটছে দুই দলেরই। এভারটন পড়ে আছে রেলিগেশন জোনে। কদিন আগে তারা বরখাস্ত করেছ কোচ ফ্র্যাঙ্ক ল্যাম্পার্ডকে। লিভারপুল এই ম্যাচ শুরু করে পয়েন্ট তালিকার দশে থেকে। সবশেষ চার ম্যাচের তিনটিতেই হেরেছিল তারা এই চার ম্যাচে ৯ গোল হজম করে গোল দিতে পেরেছিল স্রেফ একটি।

শেষ পর্যন্ত সেই আঁধার একটু সরিয়ে লিগে বছরের প্রথম জয় পেল তারা দ্বিতীয় মাসের মাঝামাঝি এসে। দলের পাশাপাশি অপেক্ষা শেষ হলো দুই গোলস্কোরারের। গত ২৬ ডিসেম্বর অ্যাস্টন ভিলার বিপক্ষে ম্যাচের পর লিগে সালাহর প্রথম গোল এটি। পিএসভি আইন্দহোফেন থেকে লিভারপুলে যোগ দেওয়ার পর সাত ম্যাচে প্রথম গোল পেলেন ডাচ ফরোয়ার্ড হাকপো।সাম্প্রতিক বাস্তবতা এমন ছিল যে, ধুঁকতে থাকা এভারটনের বিপক্ষে ম্যাচ নিয়েও শঙ্কায় ছিল লিভারপুল। ম্যাচের পর তাই শুধু স্বস্তিই নয়, সালাহর কণ্ঠে ফুটে উঠল উচ্ছ্বাস আর নতুন শুরুর আশা।“আমাদের জন্য এটি বিশাল জয়। এই সপ্তাহে আমাদের অনুশীলন ছিল নিখুঁত এবং দলের সবাই খুব রোমাঞ্চিত ছিল। মাঠে নেমে পরিস্থিতি বদলে দিতে মুখিয়ে ছিল সবাই। সেটা আমরা পেরেছি। আশা করি, এটা কেবলই শুরু।”সালাহর গোলের ঠিক আগে অবশ্য পরপর দুটি দারুণ সুযোগ পেয়েছিল এভারটন। কর্নার থেকে জেমস তারকাওয়াস্কির হেড লাগে পোস্টে, ফিরতি বলে কাছ থেকে ফাঁকা জায়গায় বল পেয়েও দুর্বল শট নেন ডোয়াইট ম্যাকনিল।

সেখান থেকেই বল পেয়ে দারউইন নুনেস বল বাড়িয়ে দেন সালাহকে। বক্সের একটু বাইরে সালাহ আবার আলতো পাস দেন নুনেসকে। দুর্দান্ত গতিতে বাম পাশ দিয়ে পাল্টা আক্রমণে ছুটে যান নুনেস। প্রতিপক্ষের বক্মের একটু বাইরে থেকে বল বাড়িয়ে দেন ভেতরে। বক্সের ঠিক মাথা থেকে দারুণ ফিনিশিংয়ে বল জালে জড়ান সালাহ।ম্যাচের পর সালাহ বললেন, নুনেসকে পাস দেওয়ার পরই গোলের ছবি আঁকা হয়েছিল তার ভাবনায়।“আমি জানতাম, দারউইন (নুনেস) দারুণ গতিময়। তারা কর্নার পায়, সেখান থেকে বল পেয়ে আমরা ওয়ান-টু খেলে এগিয়ে যাই। আমি জানতাম, সে ছুটে গিয়ে ফাঁকা জায়গায় বল দেওয়ার চেষ্টা করবে। এজন্য আমি যতটা সম্ভব দ্রুত দৌড়াচ্ছিলাম। শেষ পর্যন্ত গোলটি করতে পেরেছি, যা সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ।”এই জয়ের পর ২১ ম্যাচে ৩২ পয়েন্ট নিয়ে ৯ নম্বরে উঠে এসেছে লিভারপুল। এক ম্যাচ বেশি খেলে ৩১ পয়েন্ট পাওয়া চেলসি নেমে গেছে দশে।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য