Monday, May 16, 2022
বাড়িজাতীয়দেওঘরে রোপওয়ে ভেঙে মৃত দুই; উদ্ধার ৩০ জন, খোঁজ নেই ১৮ জনের

দেওঘরে রোপওয়ে ভেঙে মৃত দুই; উদ্ধার ৩০ জন, খোঁজ নেই ১৮ জনের


দেওঘর, ১১ এপ্রিল (হি.স.): ঝাড়খণ্ডের পবিত্র শহর দেওঘরে ত্রিকূট পাহাড়ে রোপওয়ে ভেঙে প্রাণ হারালেন দুই মহিলা। গুরুতর জখম হয়েছেন কমপক্ষে ১০ জন। দীর্ঘ সময় ধরে উদ্ধারকাজ চালানোর পর উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে ৩০ জনকে, এখনও ১৮ জনের কোনও খোঁজ পাওয়া যায়নি। জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনী, ভারতীয় বায়ুসেনা ও ভারতীয় সেনাবাহিনী উদ্ধারকাজ চালিয়ে যাচ্ছে।

রবিবার বিকেলে আচমকাই ভেঙে পড়ে রোপওয়েটি, তার পর থেকে সোমবার বেলা পর্যন্ত ৪৮ জন ওই রোপওয়েতে ঝুলতে থাকেন। দুর্ঘটনার খবর পেয়ে তৎপর হয় প্রশাসন। ঘটনাস্থলে ছুটে গিয়েছেন প্রশাসনিক আধিকারিকরা। ডাকা হয় জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীকেও। পাশাপাশি নামানো হয়েছে সেনা এবং সেনাবাহিনীকেও। উদ্ধারকাজে নেমেছে বায়ুসেনার দু’টি এমআই-১৭ কপ্টার। ঝাড়খণ্ডের মন্ত্রী হাফিজুল হাসান জানিয়েছেন, “৩০ জনকে উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে। ১৮ জন নিখোঁজ। জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনী, ভারতীয় বায়ুসেনা ও ভারতীয় সেনাবাহিনী উদ্ধারকাজ চালিয়ে যাচ্ছে।” মন্ত্রী হাসান বলেছেন, “রক্ষণাবেক্ষণের অভাবের কারণেই দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। তদন্ত দল গঠন করা হবে। আমাদের অগ্রাধিকার হল জীবন বাঁচানো।”

দেওঘরে এক পাহাড় থেকে অন্য পাহাড়ে যাওয়ার জন্য ওই রোপওয়ে ব্যবহার করা হয়। পর্যটকদের কাছে এই রোপওয়ে যাত্রা বেশ জনপ্রিয়ও। রবিবার বিকেল ৪.৩০ মিনিট নাগাদ ত্রিকূট পাহাড়ের ওই রোপওয়ে আচমকাই ভেঙে পড়ে। ডাউন স্টেশন থেকে রোপওয়ে শুরু হতে না হতেই পাহাড়ের চূড়ায় অবস্থিত রোপওয়ের ইউটিপি স্টেশনের রোলারটি হঠাৎ ভেঙে যায়। এরপর রোপওয়ের ২৩টি ট্রলি নিমেষে সাত ফুট নিচে ঝুলে পড়ে। প্রথমেই ৪০ ফুট উপরে থাকা একটি ট্রলি খাদে পড়ে যায়, যাতে পাঁচজন আরোহী ছিলেন। স্থানীয় লোকজন ও রোপওয়ে শ্রমিকরা মিলে ওই ট্রলিতে আটকে পড়া পাঁচজনকে উদ্ধার করেন। এই ঘটনায় মৃত্যু হয়েছে দু’জনের এবং বাকি ট্রলি গুলিতে আটকে পড়েন মোট ৪৮ জন পর্যটক। তাঁরা রাতভর ওই রোপওয়েতে ঝুলতে থাকেন। উদ্ধারকাজে নামানো হয়েছে বায়ুসেনার কপ্টার। সরকারিভাবে জানানো হয়েছে, একজনের মৃত্যু হয়েছে।
পুলিশ জানিয়েছে, রোপওয়ে ভেঙে পড়ার ফলে নীচের দু’টি ট্রলি পাথরের সঙ্গে ধাক্কা খায়। দুই ট্রলির আরোহী সবাই গুরুতর আহত হন। এই দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয় সুমন্তী দেবী নামে এক মহিলার। ট্রলির ভেতরে আটকে পড়া সবাই আহত হয়েছেন। আহতদের অধিকাংশই বিহারের বাসিন্দা। আহতরা হলেন-গোবিন্দ ভোক্তা, ভূপেন্দ্র বর্মন, দীপিকা বর্মন, অজ্ঞাত এক বছরের শিশু, রূপা কুমারী, সোনি দেবী, রমন কুমার শ্রীবাস্তব, সুধা রানী ও খুশবু রানী।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য