Monday, October 3, 2022
বাড়িরাজ্যপ্রত্যন্ত এলাকায় উন্নয়ন ফানুস

প্রত্যন্ত এলাকায় উন্নয়ন ফানুস

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ৯ জুলাই : মন্ত্রী মশাই ঢাক ঢোল বাজিয়ে জল জীবন মিশন প্রকল্পের গল্প শুনাচ্ছেন রাজ্যবাসীকে। প্রকল্প যে কতটা বাস্তবায়িত হচ্ছে, সেটা ভালো বলতে পারে গন্ডাছড়া ধলাঝাড়ি ভিলেজের উত্তর গাছবাগান এলাকার জনজাতি অংশের মানুষ। বাম আমলের মতো বর্তমান জোট সরকারের আমলেও তীব্র জল সংকটে ভুগছে ১৮ – ২০ টি পরিবার। প্রশাসনিক ভূমিকায় তীব্র ক্ষোভ সৃষ্টি হয়ে আছে।

 আর চুপ করে শুনছে মন্ত্রী মশাইয়ের বানানো গল্প। যুগ যুগ ধরে এ প্রত্যন্ত এলাকার মানুষ পানীয় জলের তীব্র সংকটে আছে। এলাকার বিধায়ক থেকে শুরু করে থানাসার জনপ্রতিনিধিদের অবগত করা হলেও, ভাগ্যে জুটছে না পানীয় জল। কেউ বলছে সাবকা সাথ, সবকা বিকাশ! আবার কেউ বলছেন আগে পৃথক রাজ্য, তারপর উন্নয়নের চিন্তাধারা। কিন্তু দূরদর্শী কোন জনপ্রতিনিধি এলাকার উন্নয়নের স্বার্থে কাজ করছে না বলে মনে করছে এলাকার জনগণ। এলাকায় উন্নয়নের নামে আদ্ধশ্রাদ্ধ করা হচ্ছে। কেউ উন্নয়ন করছে না, শুধুমাত্র ভোটার আসলে মুখ ভরা প্রতিশ্রুতি দেয়। কিন্তু বাস্তবটা সম্পূর্ণ প্রতিশ্রুতির অমিল বলে অভিযোগ এলাকার জনজাতি মহিলাদের। জনজাতি মহিলাদের আরো অভিযোগ, বহুবার দপ্তর এবং এলাকার জনপ্রতিনিধিদের অবগত করা হয়েছে যাতে পানীয় জলের ব্যবস্থা করে দেওয়া হয়।

কিন্তু এক সপ্তাহ, এক মাসের মধ্যে পানীয় জলের ব্যবস্থা করা হবে বলে প্রতিশ্রুতি দেন তারা। কিন্তু সবটাই মিথ্যা প্রতিশ্রুতি তা সময় গেলে বুঝা যায়। তাই ক্ষোভ প্রকাশ করলেন জনজাতি মহিলারা। তারা আরো জানান ডুম্বুর জলাশয় থেকে জল ব্যবহার করে বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হচ্ছে। ভোট দিয়ে জনপ্রতিনিধি বানানোর পরেও তাদের কোন ভূমিকা নেই। দীর্ঘ ১৫ বছর যাবত এভাবে প্রতিশ্রুতি কান ভরে শুনতে হচ্ছে এলাকার জনজাতি অংশের মানুষের। তবে কবে ভাগ্যে জুটবে পানীয় জল তা বুঝে উঠতে পারছে না এলাকার দিশেহারা জনজাতি মহিলারা।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য