Saturday, December 3, 2022
বাড়িরাজ্যসি পি এম দল অসামাজিক : মুখ্যমন্ত্রী

সি পি এম দল অসামাজিক : মুখ্যমন্ত্রী

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ১৪ অক্টোবর : সিপিএম তাদের দলীয় কার্যালয়ে গুন্ডা এবং ক্যাডার তৈরী করে।  আর বিজেপি দল তাদের দলীয় অফিসে  প্রকৃত মানুষ তৈরী করে। শুক্রবার বিজেপি ঊনকোটি জেলা কমিটির কার্যালয়ের উদ্বোধন করার পর  দলীয় সমাবেশে বক্তব্য রাখতে গিয়ে এই কথা বলেন মুখ্যমন্ত্রী ডাঃ মানিক সাহা। এদিনের দলীয় কার্যালয় উদ্বোধনে মুখ্যমন্ত্রী ছাড়াও ছিলেন বিজেপি-র প্রদেশ সভাপতি রাজীব ভট্টাচার্য , রাজ্য প্রভারী সাংসদ মহেশ শর্মা, সংগঠন মন্ত্রী ফনীন্দ্র নাথ শর্মা, বিধায়ক সুধাংশু দাশ, মন্ত্রী ভগবান চন্দ্র দাস, মন্ত্রী স্বান্তনা চাকমা, বিজেপি রাজ্য কমিটির সাধারণ সম্পাদক  টিংকু রায়, রাজ্য কমিটির সম্পাদক তাপস মজুমদার, বিজেপি ঊনকোটি জেলা কমিটির সভাপতি পবিত্র দেবনাথ সহ অন্যান্যরা।

 কৈলাসহরের পাইতুরবাজার এলাকায় ঊনকোটি জেলা কমিটির কার্যালয়টি নির্মাণ করা হয়। এদিনের সমাবেশে বক্তব্য রাখতে গিয়ে মুখ্যমন্ত্রী ডাঃ মানিক সাহা আরও বলেন সারা ভারত বর্ষে ১৫৪ টি কার্যালয় নির্মাণের কাজ চলছে। একটা আধ্যাত্মিক ভাবনা নিয়ে কার্যালয় গুলি নির্মাণ করা হচ্ছে। বিজেপি-র মূল লক্ষ্য সেবাই সংগঠন। সেবার ভাবনা নিয়ে চলে বিজেপি। রাষ্ট্রবাদী চিন্তা ধারায় মানুষকে সচেতন করার পাশাপাশি সবকা সাথ সবকা বিকাশের মন্ত্র নিয়ে কাজ করে বিজেপি। বিজেপি সম্পর্কে কিছু মানুষের মধ্যে ভ্রান্ত ধারনা রয়েছে। তাদের এই ভ্রান্ত দূর করতে এগিয়ে আসতে হবে দলীয় কার্যকরতাদের বলে আহ্বান জানান মুখ্যমন্ত্রী।

মুখ্যমন্ত্রী ডাঃ মানিক সাহা আরও বলেন সি পিএম দল অসামাজিক। রাজ্যে দেশের রাস্ট্রপতি আসার পর সিপিএম দলের প্রতিনিধিদের আমন্ত্রণ জানানো হলেও তারা রাস্ট্রপতির অনুষ্ঠানে আসেননি। রাস্ট্রপতির অনুস্টান বয়কট করেন। উল্টো দিকে কৈলাসহরে অন্য নাটক উপস্থাপন করেছে। কৈলাসহর কলেজের সায়েন্স   বিল্ডিংয়ের উদ্ধোধনী অনুস্টানে সিপিএম দলের বিধায়ক মোবস্বর আলীকে আমন্ত্রণ না জানানোয় তারা শহরে  ক্ষোভ বিক্ষোভ প্রদর্শন করে। সিপিএম দলের এসব নাটক মানুষ পছন্দ করে না। তাই ২০১৮সালে রাজ্যের  মানুষ সিপিএম দলকে প্রত্যাখ্যান করেছিলো। খুন সন্ত্রাসের রাজনীতি করে গেছে সিপিএম। পাখির চোখ করে ২০২৩-র বিধানসভা নির্বাচনে ৬০ টি আসনের মধ্যে ৬০ টি-তেই যাতে বিজেপি প্রার্থীরা জয়ী হয় তার জন্য দলীয় কার্যকরতাদের ঝাঁপিয়ে পড়ার আহ্বান জানান মুখ্যমন্ত্রী।

বিজেপি-র প্রদেশ সভাপতি সভাপতি রাজীব ভট্টাচার্য বলেন যে, আজ ঊনকোটি জেলাবাসীর জন্য সুদিন।  জেলা কমিটির অফিস উদ্ধোধনে সাধারণ মানুষের এবং দলীয় কর্মী সমর্থকদের উপস্থিতিই স্পষ্ট করে দিয়েছে আগামী নির্বাচনে কৈলাশহর ও চন্ডীপুর দুটি আসনেই বিজেপি প্রার্থীরা জয়ী হতে চলেছে। ২০২৩ সালের নির্বাচনে বিজেপি ফের একবার সরকার গঠন করবে বলে দৃড় প্রত্যয় ব্যক্ত করেন প্রদেশ সভাপতি রাজীব ভট্টাচার্য। আগামী দিনে রাজ্যে সিপিএম-কে খুঁজে পাওয়া যাবে না বলে জানান প্রদেশ সভাপতি রাজীব ভট্টাচার্য। তাদের ২১ থেকে আসন গোনার দিন শেষ। এডিসি নির্বাচনে তাদের শূন্য করে দিয়েছে মানুষ। তাই আগামী দিনের জন্য দলীয় কার্যকরতাদের একত্রিত হয়ে মাঠে নামার আহ্বান জানান তিনি। এদিনের দলীয় কার্যালয় উদ্বোধন ও সমাবেশকে কেন্দ্র করে দলীয় কার্যকরতা ও সমর্থকদের উপস্থিতি ছিল লক্ষ্যনীয়।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য