Wednesday, May 18, 2022
বাড়িখেলাকরোনা নয়, টাইফয়েডে আক্রান্ত পৃথ্বী !

করোনা নয়, টাইফয়েডে আক্রান্ত পৃথ্বী !



নয়াদিল্লি, ১২ মে (হি. স.) : রাজস্থান রয়্যালসকে ৮ উইকেটে হারিয়ে দিয়ে প্লে-অফের আশা বাঁচিয়ে রেখেছে দিল্লি ক্যাপিটালস। কিন্তু এই ম্যাচেও খেলতে পারেননি পৃথ্বী শ। কিছু দিন আগে হাসপাতালের বিছানায় শুয়ে ছবি দিয়েছিলেন ভারতীয় ওপেনার। সেই সময় জানিয়েছিলেন তাঁর জ্বর রয়েছে। সেই সময় দিল্লি দলের এক নেট বোলার করোনা আক্রান্ত ছিলেন। তবে পৃথ্বী করোনা আক্রান্ত নন। রাজস্থানের বিরুদ্ধে জয়ের পর দিল্লি অধিনায়ক ঋষভ পন্থ বলেন, “আমরা পৃথ্বীর অভাব অনুভব করছি, কিন্তু কিছু করার নেই আমাদের। চিকিৎসকরা আমাকে জানিয়েছেন ওর টাইফয়েড বা ওই জাতীয় কোনও রোগ হয়েছে।”

২০২২ আইপিএল এখন তার চূড়ান্ত পর্যায়ের দিকে এগোচ্ছে। জমে উঠেছে প্লে অফের লড়াই। এমন পরিস্থিতিতে পৃথ্বী শ’র অসুস্থতার কারণে দিল্লি ক্যাপিটালসের দল অনেকটাই ভুগছে। সম্প্রতি, তার ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টে একটি ছবি পোস্ট করার সময় পৃথ্বী শ লিখেছেন যে তিনি উচ্চ জ্বরের কারণে হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। কিন্তু এবার দলের অধিনায়ক ঋষভ পন্থ জানিয়েছেন পৃথ্বীর অসুস্থতার কথা।

রাজস্থান রয়্যালসের বিরুদ্ধে ২০২২ আইপিএল-এর ৫৮তম ম্যাচ জিতে পৃথ্বীর অসুস্থতা নিয়ে মুখ খোলেন পন্থ। এই ম্যাচে সঞ্জু স্যামসনের রাজস্থান রয়্যালসের বিরুদ্ধে আট উইকেটের বিশাল জয় নিবন্ধনের মাধ্যমে দিল্লি ক্যাপিটালস প্লে অফের দৌড়ে নিজেদের ধরে রেখেছে। ম্যাচের পর পৃথ্বী শ সম্পর্কে বলতে গিয়ে ঋষভ বলেন, ‘আমরা তার অভাব অনুভব করছি। আমরা কিছু বিষয়ের উপর নিয়ন্ত্রণ করতে পারি না। তার টাইফয়েড হয়েছে বা এমনই কিছু হয়েছে, ডাক্তার আমায় এমন কিছুই বলেছে। আশা করি তিনি ফিরে আসবেন, তবে এটা জানি না যে তিনি কবে ফিরবেন।’

উল্লেখ্য, লখনউ সুপার জায়ান্টসের বিরুদ্ধে ১ মে শেষ বার খেলতে দেখা গিয়েছিল পৃথ্বীকে। এখনও পর্যন্ত এ বারের আইপিএলে ন’টি ম্যাচ খেলেছেন তিনি। করেছেন ২৫৯ রান। ২৮.৭৮ গড় রয়েছে তাঁর। অর্ধশতরান করেছেন দু’টি। প্রসঙ্গত, চলতি আইপিএলে করোনার জন্য বেশ কয়েক দফা ভুগতে হয়েছে দিল্লি ক্যাপিটালসকে। দিল্লি শিবিরে প্রথম করোনা আক্রান্ত হন অস্ট্রেলীয় অল-রাউন্ডার মিচেল মার্শ। যার জেরে দিল্লির পুরো টিমকে কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়। মার্শের পর করোনায় আক্রান্ত হন দিল্লি ক্যাপিটালসের কিউয়ি উইকেটরক্ষক টিম সাইফার্টও। তিনিও বেশ কিছুদিন নিভৃতাবাসে কাটিয়েছেন। এরপর আবার করোনা আক্রান্ত হন কোচ রিকি পন্টিংয়ের পরিবারের একাধিক সদস্য। যার জেরে বায়ো বাবল ছেড়ে বেরিয়ে যেতে হয় দিল্লির কোচকে। তিনি বায়ো বাবলে ফিরতে না ফিরতেই রবিবার নতুন করে করোনা আক্রান্ত হন দিল্লির এক নেট বোলার। এসব করোনা কাণ্ডের মধ্যেই পৃথ্বীর টাইফয়েডের খবর।–

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য