Monday, December 5, 2022
বাড়িখেলাবাটলারের নজরে বিশ্বকাপে ফেভারিট ‘ক্লান্ত’ অস্ট্রেলিয়া

বাটলারের নজরে বিশ্বকাপে ফেভারিট ‘ক্লান্ত’ অস্ট্রেলিয়া

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক, আগরতলা,১৫ অক্টোবর: ঠাসা সূচির প্রভাব পড়েছে অস্ট্রেলিয়া দলে। টানা খেলার মধ্যে থাকায় ক্লান্তি-অবসাদ চেপে বসেছে টি-টোয়েন্টির বর্তমান চ্যাম্পিয়নদের। অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ বললেন, শিরোপা ধরে রাখতে সতেজ হয়ে ফিরতে হবে তাদের।বৈশ্বিক লড়াইয়ের আগ মুহূর্তে পরিশ্রান্ত অস্ট্রেলিয়াকে কোনোভাবেই দুর্বল ভাবতে নারাজ ইংল্যান্ড। দলটির অধিনায়ক জস বাটলারের দৃষ্টিতে, টুর্নামেন্টের ফেভারিট দলগুলোর একটি স্বাগতিকরা।গত অগাস্টের শেষ থেকে একের পর এক ম্যাচ খেলছে অস্ট্রেলিয়া। জিম্বাবুয়ে ও নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজের পর তারা গেছে ভারত সফরে। এরপর ঘরের মাঠে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলেছে তারা।ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সবশেষ সিরিজে প্রথম দুই ম্যাচে হারের পর তৃতীয় ও শেষ টি-টোয়েন্টিতেও পরাজয়ের শঙ্কায় ছিল অস্ট্রেলিয়া। তবে শুক্রবারের ম্যাচটি শেষ পর্যন্ত ভেসে যায় বৃষ্টিতে।

ম্যাচের পর ফিঞ্চ বললেন তাদের শ্রান্তি চেপে ধরার কথা। ক্রিকেট থেকে পুরোপুরি কিছুদিনের বিশ্রাম নিয়ে ফুরফুরে হয়ে বিশ্বকাপে ফিরতে চান তারা।“সত্যি কথা বলতে, আমার মনে হয় ছেলেরা সম্ভবত এই মুহূর্তে কিছুটা ক্লান্ত। গত ৬ বা ৮ সপ্তাহ ধরে ঠাসা সূচি ছিল। কয়েক মাস আগে আমরা নির্ধারণ করি, বিশ্বকাপের জন্য আমরা সঠিক সময়ে শীর্ষ অবস্থায় থাকতে চাই, আগে থেকে নয়। তাই এটা গুরুত্বপূর্ণ যে, আগামী কয়েকদিনের মধ্যে সবাইকে যতটা সম্ভব সতেজ করে তোলার চেষ্টা করতে হবে।”অস্ট্রেলিয়ায় হচ্ছে এবারের টি-টোয়েন্টির বৈশ্বিক আসর। সেখানেই  স্বাগতিকদের এই সিরিজ হারিয়ে বাড়তি আত্মবিশ্বাস নিয়ে বিশ্বকাপে অংশ নিতে যাচ্ছে ইংল্যান্ড।তবে বাটলার জানান, নিজের কন্ডিশনে খেলার সুবিধা পায় যেকোনো দল। অস্ট্রেলিয়াকে তাই ফেভারিটদের একটি ভাবছেন তিনি।“টি-টোয়েন্টি এমন একটি খেলা, যেটা হতে পারে অপ্রত্যাশিত। তবে ইতিহাস বলে, সাধারণত বড় টুর্নামেন্টে স্বাগতিকরাই কিছুটা ফেভারিট থাকে।”“আমাদের অনেকেই অস্ট্রেলিয়ায় এসেছে, খেলেছে এবং এখানকার কন্ডিশন জানে। তবে অবশ্যই কেউ অস্ট্রেলিয়া দলের মতো কন্ডিশন সম্পর্কে জানবে না বা অভ্যস্ত হবে না। একই সঙ্গে তারা বর্তমান চ্যাম্পিয়ন। তাই তাদেরকে সম্ভবত টুর্নামেন্টের ফেভারিটদের একটি হিসেবে ধরতে হবে।”সিডনিতে আগামী ২২ অক্টোবর নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে শুরু অস্ট্রেলিয়ার শিরোপা ধরে রাখার অভিযান। বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের প্রথম ম্যাচ আগামী ২৬ অক্টোবর, প্রাথমিক পর্ব পেরিয়ে আসা দলের সঙ্গে। দুই দিন পর তারা মুখোমুখি হবে স্বাগতিকদের।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য