Wednesday, August 10, 2022
বাড়িরাজ্যকর্মীদের ব্যবহার করে ছেড়ে দেওয়া বিজেপি 'র মানসিকতা: সুদীপ

কর্মীদের ব্যবহার করে ছেড়ে দেওয়া বিজেপি ‘র মানসিকতা: সুদীপ

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ৪ জুন : দেশের যদি কোন স্বাচ্ছা কমিউনিস্ট থাকে তাহলে সেটা হল কংগ্রেস দলের নেতৃত্ব। তাই বিজেপি’র বিরুদ্ধে জোরদার লড়াই করতে সিপিআইএম, তৃণমূল কংগ্রেস এবং বিজেপি থেকে নেতৃত্ব কর্মীসমর্থকরা যোগদান করছেন কংগ্রেস। মানুষ বুঝতে পারছেন বিজেপি একটা ধাপ্পাবাজি দল। ভারতীয় জনতা পার্টিতে থেকে মানুষের উপকার করা সম্ভব নয়। লুটেপুটে খাওয়ার জন্য বিজেপি রাজ্যে এসেছে। কর্মীদের ব্যবহার করে ছেড়ে দেওয়া হলো তাদের মানসিকতা।

এখন তারা রাজ্যটাকে সমাজদ্রোহী এবং নেশার কারবারিদের হাতে ছেড়ে দিতে চাইছে। যারা রাজ্যে বিজেপি’কে প্রতিষ্ঠা করার জন্য দিন রাত খেটেছেন তাদের মান সম্মান আজ আর নেই। শনিবার প্রদেশ কংগ্রেস ভবনে যোগদানের পর সাংবাদিক সম্মেলনে এ কথা জানান বিজেপির প্রাক্তন বিধায়ক তথা কংগ্রেস নেতা সুদীপ রায় বর্মন। পাশাপাশি এদিন তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে তোপ দাগলেন সুদীপ রায় বর্মন। ভোট কাটাকাটি করে বিজেপিকে সহযোগিতা করতে তৃণমূল কংগ্রেস রাজ্যে এসেছে। এমনটাই বললেন তিনি। যারা তৃণমূল কংগ্রেস থেকে এসেছেন তারা বলছেন দলের উদ্দেশ্য যদি মহান হতো তাহলে তারা তৃণমূল কংগ্রেসের থাকতেন। কিন্তু বিজেপি’কে পার পাইয়ে দেওয়ার জন্য লোক দেখানো লড়াই করছে তৃণমূল কংগ্রেস। তাই তারা তৃণমূল কংগ্রেসের সাথে থাকতে চায় না। গোয়াতে বিধানসভা নির্বাচনের আগে তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী দিয়ে বিজেপিকে ক্ষমতায় বসাতে বড় একটি ভূমিকা পালন করেছে। তাই ভোট যাতে কাটাকাটি না হয় তার জন্য যারা তৃণমূল কংগ্রেস থেকে কংগ্রেসের শামিল হয়েছেন বলে জানান সুদীপ রায় বর্মন। কংগ্রেসের নীতি আদর্শের উপর দেশবাসী পুনরায় আস্হা জ্ঞাপন করছে। রাজ্যে সাড়ে চার বছরের মধ্যে মানুষের অনাস্থা জ্ঞাপন করে কংগ্রেসে যোগদান করছে।

এদিন উপনির্বাচনী বিধানসভা কেন্দ্র টাউন বড়দোয়ালি, মান্দাই এবং বাধারঘাট বিধানসভা কেন্দ্র থেকে কংগ্রেসের যোগ দান করেন বহু নেতৃত্ব ও কর্মী-সমর্থক। বাধারঘাট বিধানসভার ৪৯ নং ওয়ার্ডের গত পুর নিগম নির্বাচনের তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী, ৪৫ নং ওয়ার্ডের প্রার্থী শাহানা বেগম, তৃণমূল কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক তপন দত্ত, সিপিআইএমের বিশ্বজিৎ দাস সহ ৪১ জন নেতৃত্ব কংগ্রেসে যোগদান করেন। মজলিশপুর বিধানসভা কেন্দ্র থেকে বিজেপি, তৃণমূল কংগ্রেস, সি.পি.আই.এম থেকে ১০ জন নেতৃত্ব যোগদান করছেন। তারা হলেন নরেন্দ্র দেবনাথ, কেশব সরকার, সুজিৎ দেবনাথ, লিটন গোপ, বিশ্বজিৎ দাস, টুটন সরকার সহ আরো অনেকে। মান্দাই বিধানসভা কেন্দ্র থেকে বিজেপির চিত্র দাস, মরণ চন্দ্র ভৌমিক, রবিনা বেগম, সুজিৎ দাস, সি পি আই এম থেকে মিটন দাস সহ ১০ জন যোগদান করেছেন।যোগদানকারীরা বুঝতে পারছে সিপিআইএম করে বিজেপিকে পরাজয় করা সম্ভব হবে না। কারণ কংগ্রেসের আদর্শে ধর্মনিরপেক্ষতার রয়েছে। তাই তারা লড়াই জোরদার করতে কংগ্রেসে এসেছে বলে জানান সুদীপ রায় বর্মন। যোগদানকারীদের হাতে দলীয় পতাকা তুলে দিয়ে দলের স্বাগত জানান কংগ্রেসের নেতৃবৃন্দ। আয়োজিত সাংবাদিক সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি বীরজিৎ সিনহা, সর্বভারতীয় কংগ্রেসের সম্পাদিকা সারিতা লাইফ্রাং সহ অন্যান্য নেতৃত্ব।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য