১৮ বছরের বেশি বয়সী সকলকে এবার করোনা ভ্যাকসিন

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক, ১৯এপ্রিল : দেশে করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে বেলাগাম সংক্রমণ। এই পরিস্থিতিতে ভাইরাসকে রুখতে বড় পদক্ষেপ করল মোদী সরকার। এবার দেশে ১৮ বছরের বেশি বয়সীদের ভ্যাকসিন দেওয়া হবে। আগামী ১ মে থেকে ১৮ বছরের বেশি বয়সীদের টিকা দেওয়ার কথা ঘোষণা করল কেন্দ্রীয় সরকার। উল্লেখ্য, এতদিন ৪৫ বছর বা তার ঊর্ধ্বে যাদের বয়স, তাঁদেরকেই ভ্যাকসিন দেওয়া হচ্ছে।

এদিন ডাক্তার ও ফার্মা সংস্থাগুলির সঙ্গে বৈঠকে বসেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সেই বৈঠকের পরই এ নিয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হল। প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, 'অল্প সময়ের মধ্যে সকল দেশবাসী যাতে ভ্যাকসিন নিতে পারেন, সেজন্য এক বছরেরও বেশি সময় ধরে সরকার কাজ করছে।'উল্লেখ্য, চলতি বছরের জানুয়ারি মাসে দেশে টিকাকরণ শুরু হয়েছে। এই মুহূর্তে ভারতে অক্সফোর্ডের কোভিশিল্ড ও ভারত বায়োটেকের কো-ভ্যাক্সিন দেওয়া হচ্ছে।

যে হারে করোনা বাড়ছে তাতে দেশের কোথাও কোথাও ভ্যাকসিনের ঘাটতি হওয়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে। এই প্রেক্ষিতে রুশ ভ্যাকসিন স্পুটনিক ভি-কে ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছে।কয়েকদিন আগেই দেশের করোনা পরিস্থিতি নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করেন মোদী। বৈঠক শেষে মোদী বলেছিলেন, 'ফের কঠিন সময় আসছে। টিকা নেওয়ার পরও সতর্ক থাকতে হবে। উপসর্গহীন আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে। করোনা মোকাবিলায় সকলকে একযোগে কাজ করতে হবে। করোনা পরীক্ষার সংখ্যা বাড়াতে হবে। মাইক্রো কনটেনমেন্ট জোনে নজর দিতে হবে। করোনা কার্ফু বজায় রাখা হোক। রাত ৯টা বা ১০টা থেকে ভোর ৫টা বা ৬টা পর্যন্ত করোনা কার্ফু করা হোক।'সোমবারের বুলেটিন অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন আরও ২ লাখ ৭৩ হাজার ৮১০ জন (Covid19)। একদিনে মৃত্যু হয়েছে ১৬১৯ জনের। একদিনে কোভিড মুক্ত হয়েছেন ১ লাখ ৪৪ হাজার ১৭৮ জন। এদিকে, এই মুহূর্তে চিকিৎসাধীন রোগীর সংখ্যা ১৯ লাখ ২৯ হাজার ৩২৯। ক্রমশই জটিল হচ্ছে পরিস্থিতি। অপ্রতুল হাসপাতালের বেড, অক্সিজেন। ফুরিয়ে আসছে জীবনদায়ী ওষুধ। এক একটি কোভিড বেড পিছু ৫০ জন করে কোভিড রোগীর লাইন পড়ছে। প্রায় প্রতিটি রাজ্যের চিত্রই সমান।