হাসপাতাল পরিদর্শনে গেলেন দিলীপ দাস

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক, ৩ মে : আইজিএম হাসপাতাল পরিদর্শনে গেলেন রোগী কল্যাণ সমিতির চেয়ারম্যান ডাঃ দিলীপ দাস। কোভিড ভয়াবহ পরিস্থিতিতে হাসপাতালে ভিড় কমাতে চিকিৎসক এবং স্বাস্থ্যকর্মীদের নাস্তানাবুদ হতে হয়। সেদিকে গুরুত্ব দিয়ে হাসপাতালে ওপিডি বিভাগ আলাদা করে করা হয়েছে। রোগীদের মধ্যে ওপিডি বিভাগে সামাজিক দূরত্ব বজায় থাকছে কিনা তা খতিয়ে দেখতে সোমবার হাসপাতালে যান তিনি। একইভাবে ক্যাজুয়েল বিভাগে রোগীরা সঠিকভাবে পরিষেবা পাচ্ছে কিনা তা পরিদর্শনে খতিয়ে দেখেন।

 পাশাপাশি ব্লাড ব্যাংকের পরিষেবা খতিয়ে দেখেন তিনি। পরে তিনি সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে বলেন, আই জি এম হাসপাতালের রোগীদের মধ্যে ভিড় কমাতে ওপিডি রেজিস্ট্রেশন বিভাগ আলাদাভাবে খোলা হয়েছে। সেখানে রোগীর পরিজনদের রাতে শয্যা ব্যবস্থা করা হবে। এবং বহির্বিভাগ থেকে যাতে মেডিসিন বিভাগে রোগের সমস্যা নিয়ে আলোচনা করতে পারে তার জন্য সাউন্ড সিস্টেমের ব্যবস্থা করা হবে। অনলাইন রেজিস্ট্রেশনের বিষয়ে চিকিৎসকদের সাথে আলোচনা করা হবে।

যাতে রোগীরা অনলাইনে রেজিষ্ট্রেশন করতে পারে। অনুরূপভাবে ক্যাজুয়েল বিভাগটি দিয়ে রোগীদের যাতে সঠিকভাবে পরিষেবা পায় তার জন্য ৮ জন চিকিৎসক ২৪ ঘন্টা দায়িত্ব ভাগ করে দেওয়া হয়েছে। তবে কিছু ক্ষেত্রে চিকিৎসক এবং স্বাস্থ্য কর্মীর অভাব রয়েছে নিজের মুখে স্বীকার করেন তিনি। আর চিকিৎসক এবং নার্সের ঘাটতি মিটে গেলে পরিষেবা ক্ষেত্রে কোন রকম সমস্যা হবে না বলে আশা ব্যক্ত করেন দিলীপ দাস। আরো বলেন, করোনা রোগী আইজিএম হাসপাতালে রাখা হবে না। কারন মানুষ যাতে নিভয়ে কোন একটি হাসপাতালে গিয়ে পরিষেবা নিতে পারে তার জন্য আলাদাভাবে রাখা হবে আইজিএম হাসপাতাল। এমনকি বর্তমানে দেখা যাচ্ছে আইজিএম হাসপাতালে রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। সুতরাং পরিষেবার দিকে বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন তিনি।