স্বাধীনতার পর প্রথমবার পশ্চিমবঙ্গ থেকে সিপিআইএম এবং কংগ্রেস মুছে গেছে : মুখ্যমন্ত্রী

স্যন্দন প্রতিনিধি। আগরতলা। ৪ মে। পাঁচ রাজ্যের নির্বাচনে ভারতীয় জনতা পার্টি প্লাস হয়েছে। সিপিআইএম ও কংগ্রেস স্বাধীনতার পর প্রথমবার পশ্চিমবঙ্গে শূন্য হয়ে গেছে। তাই পশ্চিমবঙ্গের জনতাকে শুভেচ্ছা জানায় প্রদেশ বিজেপি। মঙ্গলবার প্রদেশ বিজেপি কার্যালয়ে সাংবাদিক সম্মেলন করে একথা বলেন মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব।

 ২০১৬ সালে পশ্চিমবঙ্গের সিপিআইএম ভোট পেয়েছিল ২৩.৬ শতাংশ। ২০২১ সালে সিপিআইএমের ভোট কমে দাঁড়ায় ৪.৯৩ শতাংশে। কংগ্রেসের ক্ষেত্রে ২০১৬ সালে পশ্চিমবঙ্গে কংগ্রেস ১২.০২ শতাংশ ভোট পেয়েছিল। ২০২১ সালে সেই ভোট কমে দাঁড়ায় ২.৯৩ শতাংশে। এবং সবচেয়ে বড় বিষয় হলো তৃণমূল কংগ্রেসের সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নন্দীগ্রামে বিজেপি'র প্রার্থী শুভেন্দু অধিকারিকের কাছে পরাজিত হয়েছেন। তৃণমূল দলের সংখ্যাগরিষ্ঠ আসন মিললেও মমতাকে নৈতিকতার জন্য জয়ী করেনি পশ্চিমবঙ্গের জনগণ। যার জন্য রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব শুভেন্দু অধিকারিককে শুভেচ্ছা জানান। কিন্তু উদ্বেগের বিষয় হলো নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণার পর পশ্চিমবঙ্গে বহু কর্মী সন্ত্রাসের শিকার হয়ে প্রাণ হারাচ্ছে। এর জন্য দায়ী শাসক দল তৃণমূল। কিন্তু আসামে বিজেপি দল প্রতিষ্ঠিত হলেও কোন সন্ত্রাসের ঘটনা এখন পর্যন্ত ঘটেনি গত দুদিনে। তৃণমূলের সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দায়িত্ব গণতন্ত্র রক্ষা করার। ২০১৮ সালে বিজেপি এবং আইপিএফটি সরকারে প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পর এ ধরনের রাজনৈতিক সন্ত্রাস মূলক খুন ঘটেনি রাজ্যে বলে দাবি করেন মুখ্যমন্ত্রী। বাংলার মানুষের পাশে আছে ভারতীয় জনতা পার্টি।

 এ ধরনের নির্মম আক্রমণের জন্য নিন্দা জানান রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী শ্রী দেব। পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উচিত সন্ত্রাস রুখতে শাসক দল তৃণমূল কর্মীদের কাছে সরাসরি আপিল করার। কারণ রাজনীতিতে জয় পরাজয় রয়েছে। এই ধরনের সন্ত্রাস খুনের ঘটনা প্রতিবাদে সারাদেশে আওয়াজ তোলা হবে। ৫ এবং ৬ মে দেশের প্রত্যেকটি মন্ডলে ২০ জন করে কর্মী গলায় প্লেকার্ড ঝুলিয়ে পশ্চিমবঙ্গের সন্ত্রাসের ঘটনার প্রতিবাদ জানাবে। ভারতীয় জনতা পার্টি সন্ত্রাসের বিশ্বাসী নয়। পশ্চিমবঙ্গের তারা প্রধান বিরোধী দল হিসেবে উন্নয়নের জন্য কাজ করবে। কারণ ভারতীয় জনতা পার্টি একমাত্র দেশের মধ্যে নৈতিকতার রাজনীতিতে বিশ্বাসী বলে জানান মুখ্যমন্ত্রী। পাশাপাশি রাজ্যে স্ব-শাসিত জেলা পরিষদ নির্বাচনে সিপিআইএম এবং কংগ্রেস শূন্য হয়ে গেছে। জনতার সাথে সম্পর্ক নেই সিপিআইএম -এর। শুধুমাত্র মানুষকে ক্ষেপিয়ে তুলছে তারা। কিন্তু রাজ্যের মানুষ জানে রাজ্যে প্রথম বার ২০১৮ সালে গণতান্ত্রিক দল প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। ৫ মে করোনার জন্য বাড়ির সামনে ৫ টি করে মোম জ্বালিয়ে প্রত্যেক কর্মী পশ্চিমবঙ্গের সন্ত্রাসের ঘটনায় প্রয়াত কার্যকর্তাদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে বলেন মুখ্যমন্ত্রী। এবং তৃণমূলের সন্ত্রাসের ঘটনার নিন্দা জানাতে প্রত্যেক কার্যকরতার কাছে আহ্বান জানান মুখ্যমন্ত্রী। ভারতীয় জনতা পার্টি পশ্চিমবঙ্গে ৩ টি আসন থেকে ৭৭ টি আসন নিয়ে আসতে সক্ষম হয়েছে। মা বড় প্রাপ্তি বলে মনে করলেন মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব। এদিন আয়োজিত সাংবাদিক সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন উপমুখ্যমন্ত্রী যীষ্ণু দেববর্মা, সাংসদ প্রতিমা ভৌমিক, রেবতী মোহন দাস সহ অন্যান্য নেতৃত্ব।