শেষ পর্যন্ত পিছিয়ে গেল আইসিএসই, আইএসসি পরীক্ষাও

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক, ১৭ এপ্রিল : পিছিয়ে গেল আইসিএসই এবং আইএসসি পরীক্ষা। দেশে কোভিড সংক্রমণের বৃদ্ধির জন্য বুধবার সিবিএসই পরীক্ষার ক্ষেত্রেও প্রায় এমনই সিদ্ধান্ত নিয়েছিল কেন্দ্র। শুক্রবারও তেমনই সিদ্ধান্ত নেওয়া হল। পিছিয়ে দেওয়া হল দশম এবং দ্বাদশ শ্রেণির পরীক্ষা। জুন মাসের প্রথম সপ্তাহে পরীক্ষার নয়া সূচির ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

বোর্ডের তরফে এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘বর্তমান কোভিড পরিস্থিতি পর্যালোচনা করেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। পরিস্থিতির উপর নজর রাখা হচ্ছে। পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে জুন মাসের প্রথম সপ্তাহে’।
গত বুধবার দুপুরে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বৈঠকে বসেছিলেন কেন্দ্রীয় শিক্ষামন্ত্রী রমেশ পোখরিয়াল-সহ সংশ্লিষ্ট আধিকারিকদের সঙ্গে। সেখানেই সিবিএসই নিয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। তবে ওই ক্ষেত্রে দ্বাদশের পরীক্ষা স্থগিত হলেও কবে তা নেওয়া হবে, সে বিষয়ে কোনও ঘোষণা করা হয়নি শিক্ষা মন্ত্রকের তরফে। ১ জুন পরিস্থিতি পর্যালোচনা করে দ্বাদশ শ্রেণির পরীক্ষার এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী। শুক্রবার জানানো হল, আইসিএসই এবং আইএসসি পরীক্ষার দিনক্ষণ ঘোষণা হবে জুন মাসের প্রথম সপ্তাহে।

বুধবার বৈঠকের পর সিবিএসই-র দশমের পরীক্ষা বাতিল এবং দ্বাদশের পরীক্ষা স্থগিত রাখার বিষয়টি ঘোষণা করেছেন শিক্ষামন্ত্রী। পরীক্ষা না হলেও দশম শ্রেণির পড়ুয়াদের স্কুলের অভ্যন্তরীণ মূল্যায়নের ভিত্তিতে পরের শ্রেণিতে উত্তীর্ণ করা হবে বলে জানিয়েছেন তিনি। যদি কোনও ছাত্র বা ছাত্রী অভ্যন্তরীণ মূল্যায়নে সন্তুষ্ট না হয়, তাহলে সে পরীক্ষায় বসতে পারে। তবে কোভিড পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়ার পর নেওয়া হবে সেই পরীক্ষা।
বুধবার দুপুরের বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় শিক্ষামন্ত্রী রমেশ পোখরিয়াল এবং শীর্ষ পর্যায়ের আধিকারিকরা। মে মাস থেকে সিবিএসই বোর্ডের পরীক্ষা শুরু হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু রোজ দেশের কোভিড সংক্রমণ লাগামছাড়া হচ্ছে। সেই পরিস্থিতিতে সিবিএসই পরীক্ষা নিয়ে আলোচনার জন্যই বৈঠকে বসেছিলেন মোদী। জানা গিয়েছে সেই বৈঠকে মোদী বলেছেন, ‘‘পড়ুয়াদের মঙ্গল সরকারের কাছে সবথেকে বেশি গুরুত্বপূর্ণ।’’