মনাইছড়ায় উদ্ধার স্বামী স্ত্রীর নগ্ন মৃতদেহ;

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক, ২১জুলাই : খোয়াই মহকুমার পদ্মবিল ব্লকের বেলছড়ায় এ ডি সি ভিলেজের মনাইছড়ায় এলাকায় স্টিল ব্রিজ সংলগ্ন রাস্তার পাশে উদ্ধার হল স্বামী-স্ত্রীর নগ্ন মৃতদেহ। দম্পতির নগ্ন মৃতদেহ উদ্ধারের ঘটনায় মনাইছড়ায় ব্যাপক চান্চল্য ছড়িয়েছে। পুরো ঘটনা এখনো রহস্যাবৃত। তবে ঘটনার রহস্য উদঘাটনে পুলিশ তৎপর রয়েছে। এটি কি আদৌ কোন খুনের ঘটনা কিনা, সে সম্পর্কে ধন্দে রয়েছে পুলিশ। ফরেনসিক টীম ও ডগ স্কোয়াড তদন্তের পর মৃতদেহ জেলা হাসপাতালের মর্গে নিয়ে আসা হয় ময়না তদন্তের জন্য। ঘটনা বুধবার সকালে খোয়াই থানাধীন বেলছড়ায় , বড়কের স্কুল চৌমুনী থেকে বেলছড়া বাজার যাওয়ার রাস্তায় মনাইছড়া স্টীল ব্রীজের পাশে এক দম্পতির নগ্ন মৃতদেহ পড়ে থাকতে দেখে স্হানীয় এলাকাবাসী পুলিশে খবর দেয়। ব্রীজের একপাশে স্বামী বন্ধন মুন্ডা(৫০) ও অপর পাাশে

স্ত্রী মুকুটমণি মুন্ডা (৪০) র মৃতদেহ পড়েছিল। এই দম্পতি পেশায় ছিল দিনমজুর। স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বেলছড়ায় বাসিন্দা গণেশ দেববর্মা নামে জনৈক বাড়িতে গত দুই বছর ধরে ওরা থাকতো। দম্পত্তির মূল বাড়ি খোয়াই বাছাইবাড়ি বড় বাগাই এলাকায়। গণেশ দেববর্মার মনাইছাড়ার বাড়িটি দেখাশোনা করার জন্য  বাড়িতে থাকতো দম্পতি।গণেশ দেববর্মা পরিবার নিয়ে আগরতলায় থাকে। নিহত দম্পতির ৮ /৯ বছরের মেয়েটিও গণেশ দেববর্মার আগরতলার বাড়িতে থাকে। বন্ধন ও মুকুটমণির ১৪ /১৫ বছরের একটি ছেলে আগরতলায় কোথাও রুজি রোজগারের জন্য থাকে। মংগলবার সকালে ঘরে তালা দিয়ে স্বামী স্ত্রী বের হয়ে যায় বলে জানা গেছে। পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, মৃতদেহ দুটিতে শরীরে পেটের মধ্যে ধারালো অস্ত্রের আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়।এলাকাবাসীর সন্দেহ, ধর্ষণকাণ্ডে পরিণতি হলেও হতে পারে। গতকাল রাতে বাড়ি ফেরার পথে স্ত্রী হয়তো স্বামীর সামনে ধর্ষণের শিকার হয়েছে। স্বামী বাধা দিলেছিল। প্রমাণ লোপাট করার জন্য দুু'জনকেই খুন করে দেওয়া হয়েছে।

মৃতদেহের পাশে ঘাসের উপর ধ্বস্তাধ্বস্তির চিহ্ন প্রত্যক্ষ করা গেছে বলে জানা যায়। দম্পতি কি কারণে খুন হয়েছে পুলিশ ঘটনার উন্মোচন করার জন্য তদন্তে নেমে পড়েছে। দুপুরে ফরেনসিক ও ডগ স্কোয়াড আগরতলা থেকে আসার পর ঘটনাস্থলে তদন্ত করা হয়। ময়নাতদন্তের জন্য মৃতদেহ দুটি খোয়াই জেলা হাসপাতালে মর্গে আনা হয়। আগামীকাল ময়নাতদন্তের পর মৃত দেহ পরিবারের হাতে তুলে দেবে পুলিশ। তবে পুলিশ এখনো পর্য্যন্ত কোন সিদ্ধান্তেই আসতে পারছে না।