বিয়ে বাড়ির ঘটনাকে কেন্দ্র করে মুখ খুললেন বিরোধী দলনেতা

 

 

 

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক, ২৮এপ্রিল : গত ২৬ এপ্রিল রাতে রাজধানীর দুটি বিয়ে বাড়িতে পশ্চিম জেলার জেলা শাসকের অভিযান নিয়ে সরব হলেন বিরোধী দলনেতা মানিক সরকার। তিনি মন্তব্য করেন যারা এই কাজগুলি করছেন তাঁরা আইন, কানুন, নিয়ম, পদ্ধতি সম্পর্কে অবগত। কিন্তু প্রয়োগের ক্ষেত্রে কার্যকরী ভূমিকা নিতে পারছেন না। একটা অংশ আছে রাজনীতিবিদদের তুষ্ট রাখতে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।

আরেকটি অংশ ক্ষমতা পিপাসু। এর মধ্যে হাত গুটিয়ে নিচ্ছে রাজনীতিবিদেরা। নিয়ম না মেনে থাকলে তাদের বিরুদ্ধে সঠিক ভাবে পদক্ষেপ নিতে পারতেন। কিন্তু আমলার পক্ষ দাম্ভিক , ক্ষমতা লোভী ব্যবহার করা হল। হেনস্থা হল বর পক্ষ, কনে পক্ষ, বর ও বৌ, পুরহিত এবং পুলিশ। এটা সিমাহীন ধৃষ্টতা। একে মেনে নেওয়া যায় না। এই ধরনের লোক জেলা শাসকের মতো গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বে থাকা অসহনীয়। জেলাস্তরে তাদের ভুমিকাই মুখ্য। কিন্তু আগরতলা শহরে যে কান্ড ঘটালেন তা কেউ মেনে নিতে পারবে না। মুখ্যমন্ত্রীর গোচরে বিষয়টি গেছে।  প্রাথমিক ভাবে তাকে জেলা শাসকের দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দিয়ে তদন্ত ও ব্যবস্থা গ্রহণ করা যেত। কিন্তু এখনো পর্যন্ত তা করা হয়নি। উল্টে সরকার তাকে প্রশয় দিল। এই জাতীয় অফিসারেরা  সরকারের মুখে চুনকালি মাখানোর সাহস  নতুন করে পেয়ে যাচ্ছে বলে মন্তব্য করেন বিরোধী দলনেতা মানিক সরকার।