পশ্চিমবঙ্গের সন্ত্রাস রুখতে ধর্নায় প্রদেশ বিজেপি

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক, ৫ মে : ২ মে পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভার ভোটের ফলাফল প্রকাশের পর চলছে সন্ত্রাসমূলক ঘটনা। হামলা হুজ্জুতি লুটপাট থেকে পশ্চিমবঙ্গের কোন ভারতের জনতা পার্টির কর্মী রক্ষা পাচ্ছে না। প্রদেশ বিজেপির কেন্দ্রীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা নির্দেশে বুধবার এবং বৃহস্পতিবার দুই দিন সারাদেশের সাথে রাজ্যেও সন্ত্রাসের তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে দুইদিন প্রত্যেকটি মন্ডলে প্রতিবাদ কর্মসূচি অনুষ্ঠিত সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।

এরই পরিপ্রেক্ষিতে বুধবার দুপুর বারোটা নাগাদ জি বি হাসপাতালে সম্মুখে ধর্নায় সম্মুখীন হন সাংসদ প্রতিমা ভৌমিক। তিনি বলেন, পূর্বের সিপিআইএম থেকে তৃণমূলের সুপ্রিমো মমতা ব্যানার্জি তিনগুণ সন্ত্রাস করছেন বাংলায়। ১৭ বছরের নাবালিকা থেকে শুরু করে ৮০ বছরের মহিলা পর্যন্ত তৃণমূল দুষ্কৃতিদের হাত থেকে নিরাপদ নয়। কারণ তারা ভারতীয় জনতা পার্টির সক্রিয় কর্মী সমর্থক। আর তৃণমূলে সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে আন্দোলন চলছে গোটা দেশে। প্রদেশ বিজেপিও এ ধরনের সন্ত্রাসের তীব্র নিন্দা জানান বলে জানিয়েছেন সংসদ প্রতিমা ভৌমিক। এদিকে প্রতিবাদ কর্মসূচিতে পার্টির  বিভিন্ন স্তরের নেতৃত্বরা অংশ নেন। বুধবার ৮ নং টাউন বড়দোয়ালি মন্ডলের উদ্যোগে রাজধানীর সিটি সেন্টারের সামনে অনুরূপ ভাবে বুকে প্ল্যাকার্ড ঝুলিয়ে বিক্ষোভে সামিল হয় বিজেপি নেতা ও কর্মীরা।

এই কর্মসূচীতে অংশ নেন বিজেপি-র প্রদেশ সভাপতি ডাঃ মানিক সাহা। গত ২ মে ৫ টি রাজ্যের বিধানসভার ফলাফল প্রকাশিত হয়েছে। এর মধ্যে পশ্চিমবঙ্গে নির্বাচনোত্তর ব্যাপক সন্ত্রাস চালাচ্ছে তৃণমূল কংগ্রেস। বিজেপি-র কর্মী সমর্থকদের বেছে আক্রমণ , বাড়ি ঘর ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগ করা হচ্ছে। এখনো পর্যন্ত ৯ জন কার্যকর্তাকে হত্যা করা হয়েছে। মহিলা কর্মীদের রেহাই পায়নি। ধর্ষণের খবর আসছে। তারই প্রতীবাদে দেশ ব্যাপী আন্দোলনের অঙ্গ হিসাবে রাজ্যের প্রতিটি মণ্ডল বিক্ষোভ প্রদর্শন করা হচ্ছে। এই আক্রমণের তীব্র নিন্দা জানায় বিজেপি ত্রিপুরা প্রদেশ। ৬০ টি মন্ডলে এক জোগে বিক্ষোভ দেখানো হচ্ছে। তৃণমূল সুপ্রীমো মমতা ব্যানার্জীর নেতৃত্বে এই আন্দোলন চলছে বলে জানান বিজেপি-র প্রদেশ সভাপতি ডাঃ মানিক সাহা। ধর্নায় এদিন এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন টাউন বড়দোয়ালি মন্ডল সম্পাদক অভিজিৎ দাস, মন্ডল সভাপতি সঞ্জয় সাহা সহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।