পচা মৃতদেহ উদ্ধার

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক, ১০জুন : বাড়ি থেকে সামান্য দূরে জঙ্গলের ভেতর এক বৃদ্ধার পচা মৃতদেহ উদ্ধারের ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়েছে আমতলী থানার মধুবন সেটেলমেন্ট কলোনীতে। অভিযোগ মহিলাকে গলাটিপে খুন করে দেহ জঙ্গলে ফেলে দেওয়া হয়েছিল। মৃত মহিলার নাম শোভা দেবনাথ (৫৯)।

স্বামী মৃত রমণীমোহন দেবনাথ। তিন দিন আগে থেকে মহিলা নিখোঁজ ছিলেন বলে তার ছেলে রবীন্দ্র দেবনাথ পুলিশের কাছে জানিয়েছে। ছেলের বিবরণ অনুযায়ী গত ৭জুন মহিলা বাড়ি থেকে বের হয়েছিলেন। এর পরে তিনি আর বাড়ি ফিরে আসেননি। বৃহস্পতিবার দুপুরে রবীন্দ্র দেবনাথ মায়ের মায়ের নিখোঁজ ডাইরি করেছিলেন আন্তরিক। থানার পুলিশ তদন্ত শুরু করার আগেই বাড়ির কয়েক কিলোমিটার দূরে এলাকার লোকজন মহিলার মৃতদেহ দেখতে পান। পুলিশ সূত্রের দাবি মৃতদেহটি প্রায় পচন ধরে ছিল। পচা গন্ধ অনুসরণ করে সন্ধ্যা সাতটা নাগাদ স্থানীয় লোকজন একটি জঙ্গলের ভেতর মহিলার মৃতদেহ দেখতে পায়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যান আমতলী মহকুমা পুলিশ আধিকারিক সহ থানা পুলিশ। প্রাথমিক তদন্তের পর পুলিশ মৃতদেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠিয়েছে।

মহিলার মৃত্যুর কারণ নিয়ে ধোঁয়াশা তৈরি হয়েছে। প্রাথমিক তদন্তের পর পুলিশের দাবি মৃত ছেলের বিবরণ অনুযায়ী তিনি কিছুটা মানসিক ভারসাম্য ছিলেন এবং শারীরিকভাবে অসুস্থ ছিলেন। প্রায়শই তিনি বাড়ি থেকে বের হয়ে যেতেন এবং দু-তিনদিন বাড়ির বাইরে থাকতেন। তিন দিন আগে বাড়ি থেকে বের হয়ে যাওয়ার পর আর বাড়ি ফিরে আসেননি। তবে এই ঘটনায় অমৃতার প্রতিবেশী মহলে বিভিন্ন ধরনের গুঞ্জন রয়েছে। এই ঘটনাকে খুন বলে অভিযোগ করেছেন কয়েকজন।