দীর্ঘপাল্লার ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা উত্তর কোরিয়ার

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক,১৩ সেপ্টেম্বর:উত্তর কোরিয়া সফলভাবে একটি নতুন দীর্ঘপাল্লার ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালিয়েছে বলে দেশটির রাষ্ট্রায়ত্ত গণমাধ্যম জানিয়েছে।সোমবার কেসিএনএ জানিয়েছে, এই ক্ষেপণাস্ত্রগুলো ‘অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ কৌশলগত অস্ত্র’ এবং দেড় হাজার কিলোমিটার (৯৩০ মাইল) উড়ে গিয়ে লক্ষ্যস্থলে আঘাত হেনেছে।শনি ও রোববার পরীক্ষাগুলো করা হয় এবং ক্ষেপণাস্ত্রগুলো উত্তর কোরিয়ার জলসীমার মধ্যেই পড়েছে বলে জানিয়েছে তারা। ।      

বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, এটি দেশটির পারমাণবিক সক্ষমতা সম্পন্ন এ ধরনের প্রথম ক্ষেপণাস্ত্র হতে পারে বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা।সাধারণত উত্তর কোরিয়ার ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের চেয়ে ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্র কম আগ্রহ তৈরি করে, কারণ জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের রেজুলেশনে এগুলো স্পষ্টভাবে নিষিদ্ধ করা হয়নি। 

ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্রে বহনযোগ্য ছোট ওয়ারহেড নির্মাণে প্রয়োজনীয় প্রযুক্তি উত্তর কোরিয়া আয়ত্ত করেছে কিনা তা পরিষ্কার হওয়া যায়নি, কিন্তু ছোট বোমা উৎপাদন তাদের অন্যতম প্রধান লক্ষ্য বলে চলতি বছরের প্রথমদিকে বলেছিলেন দেশটির নেতা কিম জং উন।দুই কোরিয়া পাল্লা দিয়ে অস্ত্র বাড়ানোর প্রতিযোগিতায় লিপ্ত রয়েছে এবং এতে অঞ্চলটি শক্তিশালী নতুন ক্ষেপণাস্ত্রে ভরে উঠতে পারে বলে আশঙ্কা বিশ্লেষকদের।উত্তর কোরিয়ার সর্বশেষ এই ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা তারা শনাক্ত করেছে কিনা তা প্রকাশ করেনি দক্ষিণ কোরিয়া, কিন্তু সোমবার বলেছে, যুক্তরাষ্ট্রের সহযোগিতায় তারা একটি বিশদ বিশ্লেষণ পরিচালনা করছে।

যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক বাহিনীর ইন্দো-প্যাসিফিক কমান্ড বলেছে, তারা এ সংক্রান্ত প্রতিবেদনগুলোর বিষয়ে জ্ঞাত আছে এবং তাদের মিত্র ও অংশীদারদের সঙ্গে সমন্বয় করছে।  উত্তর কোরিয়ার ক্ষমতাসীন ওয়ার্কার্স পার্টির মুখপত্র রোডং সিনমুন নতুন ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্রটির উড়ে যাওয়ার ও একটি ট্রান্সপোর্টার-ইরেক্টর-লঞ্চার থেকে এটির উৎক্ষেপণের ছবি প্রকাশ করেছে।মার্চে পরীক্ষামূলকভাবে একটি নতুন কৌশলগত স্বল্পপাল্লার ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়েছিল উত্তর কোরিয়া। এর আগে জানুয়ারিতে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন দায়িত্ব গ্রহণের কয়েক ঘণ্টা পর আরেকটি ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা করেছিল দেশটি।