জেলাশাসক শৈলেশ কুমার যাদবের সমদোষী মুখ্যমন্ত্রীও : আশিস দাস

স্যন্দন প্রতিনিধি। আগরতলা। ২৯ এপ্রিল : ২৬ এপ্রিল রাজ্যে দুটি বিয়ে বাড়িতে জেলাশাসক শৈলেশ কুমার যাদবের স্বৈরাচারের ঘটনার প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার ফের সার্কিট হাউসে গান্ধী মূর্তির পাদদেশে ধর্নায় বসলেন স্বদলীয় বিধায়ক আশিস দাস। এদিনেও তিনি মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ করেন। বিধায়ক বলেন, ২৬ এপ্রিল থেকে রাজ্যজুড়ে জেলা শাসকের বিরুদ্ধে সমালোচনার ঝড় বইছে। প্রখ্যাত গায়ক সনু নিগম এবং আইনজীবী এই ঘটনার বিরুদ্ধে তীব্র নিন্দা জানিয়ে জেলাশাসকের শাস্তির দাবি জানান।

 কারণ জেলাশাসক শৈলেশ কুমার যাদব রাজ্যকে কলঙ্কিত করেছেন। দেশের সনাতন ধর্মের ঐতিহ্য নষ্ট করেছেন। কিন্তু রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী স্বৈরাচারী জেলা শাসকের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ না করে প্রশ্রয় দিয়ে চলেছেন বলে তীব্র বিরোধিতা করেন দলের বিধায়ক আশিস দাস। সেদিনের ঘটনার জন্য দুজন আই এস অফিসারকে দিয়ে তদন্ত কমিশন গঠন করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। এই জায়গায় দাঁড়িয়ে রাজ্যের মানুষের মধ্যে প্রশ্ন উঠছে কোন ঘটনার রহস্য উদঘাটন করতে মুখ্যমন্ত্রীকে তদন্ত কমিশন গঠন করতে হলো। সমস্ত কিছুতো ভিডিও ছবিতে রয়েছে। তাহলে কি মুখ্যমন্ত্রী ভিডিও ছবি ভুল প্রমাণ করতে চাইছেন ? তদন্ত কমিশন গঠন করে দেশবাসীর কাছে ত্রিপুরাকে ছোট করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। মুখ্যমন্ত্রীর যদি এই ঘটনাকে প্রশ্রয় দেন, তাহলে জেলাশাসক শৈলেশ কুমার যাদবের সমদোষী মুখ্যমন্ত্রীও। তিনি আরো বলেন, জেলাশাসকের এই ধরনের ঘটনার কোনো প্রশ্রয় দেওয়া হবে না। দাবি জেলাশাসক শৈলেশ কুমার যাদবকে বরখাস্ত করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি প্রদান করতে হবে। ‌ আর বরখাস্ত না করা পর্যন্ত আন্দোলন অব্যাহত থাকবে বলে জানান বিধায়ক শ্রী দাস। তিনি আরো বলেন মুখ্যমন্ত্রীকে গত ২৭ এপ্রিল জেলাশাসকের বরখাস্তের দাবিতে চিঠি দেওয়া হলেও এখন পর্যন্ত কোন ধরনের আশ্বাস পাওয়া যায়নি। তবে সত্যের প্রতিবাদ অব্যাহত থাকবে বলে জানান তিনি।