করোনায় মৃত্যু ২, আক্রান্ত ১১১

স্যন্দন প্রতিনিধি। আগরতলা। ২৭ এপ্রিল : করোনায় গত দুইদিন থেকে একধাপ এগিয়ে আবারো একশোর গন্ডী অতিক্রম করলো সংক্রমনের সংখ্যা। গত ২৪ ঘন্টায় আক্রান্তের সংখ্যা ১১১। পাল্লা দিয়ে মৃত্যু হয় ২ জনের। নমুনা পরীক্ষা হয় ৪৩৭০ জনের। আরোগ্য হয় ৩৫ জন। আরোগ্যের হার ৯৬.৫৭ শতাংশ। এবং মঙ্গলবার পর্যন্ত সক্রিয় রোগীর সংখ্যা ৭৯৩ জন।

 সুতরাং রাজ্য আরো একবার ঝুঁকির দিকে এগিয়ে চলেছে। সংক্রমণ সারা দেশের সাথে রাজ্যেও প্রভাব বিস্তার করছে। অধিকাংশ ক্ষেত্রেই প্রশাসনিক গাফিলতিতেই আশঙ্কা আরো বেশি বাড়িয়ে দিচ্ছে সচেতন মহলে। কারণ দূরপাল্লার ট্রেনগুলি প্রতিদিন বহি রাজ্য থেকে রাজ্যে প্রবেশ করার ফলে ঝুঁকি অস্বাভাবিক ভাবে বাড়ছে। রাজ্যের দু-তিনটি স্টেশন বাদে বাকি স্টেশনগুলোতে যাত্রীদের নমুনা পরীক্ষা করা হচ্ছে না। বিশেষ করে যে জিরানিয়া, যোগেন্দ্র নগরের মতো রেলস্টেশন গুলি থেকে বহু যাত্রী প্রতিদিন আসা-যাওয়া করছে।

ফলে দূরপাল্লার ট্রেনে করে আসা যাত্রীদের দ্বারা করোনা নতুন বৈশিষ্ট্য রাজ্যে আসবে না এর কোনো নিশ্চয়তা নেই। এবং আগরতলা বাজার ঘাট রেলস্টেশনটি রাজ্যের ব্যস্ততম রেল স্টেশন। বহু যাত্রী বাধারঘাট রেলস্টেশনে এসে নামছে। অস্বাভাবিক ভীড় হওয়াতে বহু যাত্রী নমুনা পরীক্ষা না করে বাড়ি ফিরছে। সংক্রমণের ঝুঁকি আরো এক ধাপ বেরে যাচ্ছে। স্বাস্থ্য দফতরের পক্ষ থেকে জেলা শাসকের কাছে আরও অতিরিক্ত পুলিশ কর্মী বাধারঘাট রেলস্টেশনে নিয়োজিত করার জন্য দাবি জানানো হয়েছে বলে সূত্রে খবর। কিন্তু বিশেষ করে রাজ্যের সমস্ত রেলস্টেশনে নমুনা পরীক্ষা করার ব্যবস্থা না থাকায় ঝুকি কয়েকগুণ বেড়ে যাচ্ছে। বেসামাল হয়ে পড়তে পারে সংক্রমণ। সচেতন মহলের দাবি প্রশাসন সমস্ত রেল স্টেশনের নমুনা পরীক্ষা ব্যবস্থা গ্রহণ করুক, না হয় আপাতত দূরপাল্লার রেল পরিষেবা বন্ধ রাখা জন্য।