ঈদের দিনে গরু জবাই নিয়ে দুই জাতির মধ্যে উত্তেজনা

  স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক, ২১জুলাই :কুরবানী ঈদের দিনে গরু জবাই নিয়ে দুই জাতির মধ্যে বাঁধা দান, উত্তেজনা, ঘটনাস্থলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে তেলিয়ামুড়া থানার পুলিশ। বুধবার সকালে তেলিয়ামুড়া থানাধীন চাকমা ঘাট গ্রাম পঞ্চায়েতের জারুইলং পাড়া এলাকায় ।

       খবরে প্রকাশ, বুধবার কুরবানী ঈদ উপলক্ষ্যে জারুইলং এলাকার মুসলিম সম্প্রদায়ের লোকজনেরা গরু জবাই এর জন্য প্রস্তুতি নেয় বুধবার সকালে। এই খবর পেয়ে জনজাতি অংশের লোকজনেরা  আপত্তি জানায় উক্ত স্থানে গরু জবাই নিয়ে। এতে  মুসলিম সম্প্রদায় এবং উপজাতিদের মধ্যে প্রচণ্ড উত্তেজনা দেখা দেয় এলাকা চত্বরে।খবর পেয়ে তেলিয়ামুড়া থানার এস.আই প্রীতম দত্ত বিশাল টি.এস.আর জওয়ান নিয়ে ঘটনাস্থলে যায়। ছুটে আসে চাকমা ঘাট গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান, পঞ্চায়েতের সদস্যরা, সংখ্যালঘু নেতা চান মিয়া সহ অন্যান্যরা।

      পরে তেলিয়ামুড়া থানার পুলিশের উপস্থিতিতে ২০ পরিবার মুসলিম এবং ১২ পরিবার জনজাতি অংশের লোকজনেরা সিদ্ধান্ত নেয় মিলিতভাবে এ বছর গরু কাঁটা হবে। কিন্তু এরপর থেকে গরু জবাই করা হবে অন্য কোনো স্থানে।    তবে এলাকার একটি সূত্র থেকে জানা যায়, কোন এক রাজনৈতিক দলের উস্কানিতে এমনটা উত্তেজনার পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছিল বুধবার সকালে। শেষ পর্যন্ত পুলিশের হস্তক্ষেপে পরিস্তিতি নিয়ন্ত্রণে আসে।