অ্যারিজোনার পথে ট্রাম্প, বাড়ির কাছে অনুষ্ঠানে বাইডেন

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক, ২৮ অক্টোবর: যুক্তরাষ্ট্রের সাধারণ নির্বাচনের ছয় দিন আগে শেষ মুহুর্তের প্রচারণা চালাতে অ্যারিজোনায় যাচ্ছেন প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প আর তার প্রতিদ্বন্দ্বী জো বাইডেন ডেলাওয়ারে নিজের বাড়ির কাছে এক অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখবেন। দোদুল্যমান রাজ্য অ্যারিজোনায় ডেমোক্র্যাট বাইডেনের চেয়ে রিপাবলিকান ট্রাম্প সামান্য পিছিয়ে আছেন বলে জনমত জরিপগুলোতে ইঙ্গিত মিলেছে।হোয়াইট হাউসের দখল ধরে রাখতে মরিয়া ট্রাম্প বুধবার অ্যারিজোনায় দুটি প্রচার সমাবেশে অংশ নেবেন বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।একইদিন বাইডেন ডেলাওয়ারে জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের কাছ থেকে পরামর্শ নেবেন এবং তার বাড়ির কাছে এক অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখবেন। সেখানে তিনি কোভিড-১৯ মোকাবেলা এবং আগে থেকে স্বাস্থ্যগত সমস্যা আছে এমন ব্যক্তিদের কীভাবে প্রাণঘাতী এ ভাইরাসের হাত থেকে সুরক্ষিত রাখবেন সে বিষয়ক পরিকল্পনা তুলে ধরবেন বলে জানিয়েছে তার প্রচার শিবির।

যুক্তরাষ্ট্রের এবারের নির্বাচনে করোনাভাইরাস মহামারীই সবচেয়ে বেশি প্রভাব ফেলতে যাচ্ছে বলে ধারণা বিশেষজ্ঞদের।কোভিড-১৯ এরই মধ্যে দেশটির ২ লাখ ২৫ হাজারের বেশি মানুষের প্রাণ কেড়ে নিয়েছে; মহামারীর কারণে চাকরি হারিয়েছে লাখ লাখ মানুষ।সংক্রমণের ভয়ে এবার এরই মধ্যে দেশটির ৭ কোটিরও বেশি ভোটার ডাকযোগে কিংবা কেন্দ্রে গিয়ে আগাম রায় জানিয়ে এসেছেন বলে জানিয়েছে ফ্লোরিডা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইউএস ইলেকশনস প্রজেক্ট।রেকর্ড এ আগাম ভোট ২০১৬ সালে পড়া মোট ভোটের অর্ধেকেরও বেশি, বলছে রয়টার্স।নির্বাচনের আগে জাতীয় পর্যায়ের প্রায় সব জনমত জরিপেই ট্রাম্পের তুলনায় বাইডেনকে স্বস্তিদায়ক ব্যবধানে এগিয়ে থাকতে দেখা যাচ্ছে। তবে দোদুল্যমান হিসেবে পরিচিত রাজ্যগুলোতে দুই প্রার্থীর মধ্যে হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে। এ রাজ্যগুলোর ভোটই পরবর্তী মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্ধারণের ক্ষেত্রে মূল ভূমিকা পালন করবে বলে পর্যবেক্ষকরা মনে করছেন।

চলতি বছর ডাকযোগে বিপুল সংখ্যক ভোট পড়ায় আগের মত দ্রুত ফলাফল নাও পাওয়া যেতে পারে। এরই মধ্যে ৪ কোটি ৬৮ লাখেরও বেশি নিবন্ধিত ভোটারের ‘মেইল-ইন ব্যালট’ জমা পড়েছে। এগুলো গণনায় কয়েক দিন বা সপ্তাহও লেগে যেতে পারে; যে কারণে এ বছর ৩ নভেম্বর ভোটের রাতেই পরবর্তী প্রেসিডেন্ট কে হচ্ছেন, তা জানা নাও যেতে পারে বলে অনুমান বিশ্লেষকদের।ডাকযোগে দেওয়া ভোট গণনায় দীর্ঘ সময় লাগায় তা ভোট জালিয়াতির সুযোগ করে দিতে পারে বলে দীর্ঘদিন ধরেই এ প্রক্রিয়ার সমালোচনা করে আসছিলেন ট্রাম্প। মঙ্গলবার ফের ‘মেইল-ইন’ ভোটের প্রক্রিয়ার বিশুদ্ধতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন তিনি। বলেছেন, ডাকযোগে দেওয়া ভোট গণনা করতে অতিরিক্ত সময় লাগলে তা ‘যথাযথ হবে না’।“ব্যালট গুণতে দুই সপ্তাহ লাগার চেয়ে কে বিজয়ী তা ৩ নভেম্বর ঘোষণা করাই সবচেয়ে ভালো ও উপযুক্ত হবে। ব্যালট গুণতে বেশি সময় লাগা একেবারেই যথাযথ হবে না, এবং আমার মনে হয় না যে এটা আমাদের আইন অনুসারে হয়,” সাংবাদিকদের এমনটাই বলেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট।এবারের হোয়াইট হাউস দখলের দৌড়ে খুবই গুরুত্বপূর্ণ ‘ব্যাটলগ্রাউন্ড’ অ্যারিজোনায় ২০১৬ সালের নির্বাচনে ট্রাম্প সেসময় তার ডেমোক্র্যাট প্রতিদ্বন্দ্বী হিলারি ক্লিনটনকে সাড়ে ৩ পয়েন্টের ব্যবধানে হারিয়েছিলেন।রয়টার্স/ইপসসের চলতি মাসের ১৪ থেকে ২১ তারিখ পর্যন্ত করা এক জরিপে রাজ্যটিতে বাইডেনকে ট্রাম্পের তুলনায় ৩ পয়েন্ট এগিয়ে থাকতে দেখা যাচ্ছে।বাইডেন যদি এবার অ্যারিজোনার ১১টি ইলেকটোরাল ভোট ব্যাগে ভরতে পারেন তাহলে ১৯৯৬ সালের পর তিনিই হবেন প্রথম ডেমোক্র্যাট প্রার্থী যিনি রাজ্যটিতে জয়লাভ করলেন।মঙ্গলবার রাতে নেভাডার লাস ভেগাসে থাকার পর ট্রাম্প বুধবার আরিজোনার বুলহেড সিটি এবং রাজ্যের সবচেয়ে বড় শহর ফিনিক্সের বাইরে গুডইয়ারে সমাবেশ করবেন।