Saturday, July 2, 2022
বাড়িরাজ্যসুদীপকে দেখতে হাসপাতালে গেলেন বিরোধী দলনেতা সহ বহু হেভিওয়েট নেতৃত্ব

সুদীপকে দেখতে হাসপাতালে গেলেন বিরোধী দলনেতা সহ বহু হেভিওয়েট নেতৃত্ব

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ২০ জুন : উপনির্বাচনে প্রাক লগ্নে শাসক দলের হাতে আক্রান্ত কংগ্রেস প্রার্থী সুদীপ রায় বর্মন। গুরুতর আহত অবস্থায় রাজ্যে বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন তিনি। খবর পেয়ে হাসপাতালে ছুটে গেলেন বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতৃত্ব। উপনির্বাচনের পাক লগ্নে আক্রান্ত কংগ্রেস প্রার্থী সুদীপ রায় বর্মন। রবিবার রাতে ভয়াবহ হামলার শিকার হয়েছেন তিনি।

এর কৌশলী শাসকদলের বাইক বাহিনী বলে অভিযোগ। জানা যায়, রাত বারোটার সময় অভয়নগর বাজারে তার উপর শাসকদলের দুষ্কৃতিকারীরা হামলা করে। গুরুতর আহত হন সুদীপ রায় বর্মন। স্হানীয়রা তাকে আইএল এস হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করায়। জানা যায় অভয়নগর বাজারে প্রথমে হামলা হয় সুদীপ রায় বর্মনের অত্যন্ত কাছের লোক বাপি গোস্বামী । সেই হামলার খবর পেয়ে সুদীপ রায় বর্মন কোন রকম নিরাপত্তারক্ষী ছাড়াই বাপিকে রক্ষার জন্য ঘটনাস্থলে ছুটে যান। তখনই অভয়নগর বাজারে তার উপর ইট এবং লাঠিসোটা নিয়ে হামলে পড়ে কিছু দুষ্কৃতী। পরে এলাকার লোকজন তাকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠায় বলে জানান কংগ্রেস প্রার্থী আশীষ কুমার সাহা। তিনি বলেন আগরতলা বিধানসভা কেন্দ্রে বিজেপি দলের প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ডাঃ অশোক সিনহার নেতৃত্বে এ ধরনের প্রাণঘাতী হামলা হয়েছে। আগেই নির্বাচন কমিশনার কে কংগ্রেস অবগত করেছিল যাতে অশান্তির পরিবেশ বন্ধ করতে ব্যবস্থা গ্রহণ করেন। কিন্তু তারপরও এ ধরনের প্রাণঘাতী হামলা হওয়ায় প্রশাসনিক ভূমিকা অত্যন্ত নিন্দাজনক। এটি আগামী দিনের জন্য কাল অশুভ সংকেত। এ বিষয়ে কংগ্রেস অত্যন্ত উদ্বিগ্ন। এগুলি যদি আগামী দিনে বন্ধ না হয় তাহলে ভয়ঙ্কর রূপ নেবে বলে জানান আশীষ কুমার সাহা।   

এদিকে ঘটনার খবর পেয়ে ছুটে যান বিরোধী দলনেতা মানিক সরকার এবং প্রাক্তন সাংসদ শংকর প্রসাদ দত্ত। প্রাক্তন সাংসদ জানান গণতন্ত্রের প্রতি বিজেপি’র কোনো মর্যাদা নেই। কোন প্রতিশ্রুতি পালন করতে না পেরে গায়ের জোরে মানুষকে শাসন করতে চাইছে। সুতরাং এ ধরনের বর্বরতার নিন্দা জানানোর মতো কোনো রাস্তা নেই। মানুষ সরকারের প্রতি তীব্র ক্ষুব্ধ হয়ে আছে বলে জানান তিনি।   

এদিকে প্রদেশ কংগ্রেসের পর্যবেক্ষক অজয় কুমার হাসপাতালে গিয়ে সুদীপ রায় বর্মন এর শারীরিক অবস্থার খোঁজখবর নিয়ে জানান, এ ঘটনা অত্যন্ত নিন্দাজনক। অমিত শাহ এর দল একটি গুন্ডার দল বলে জানান তিনি।

ত্রিপুরা ডেমোক্রেটিক ফ্রন্টের চেয়ারম্যান পীযূষ কান্তি বিশ্বাস ঘটনার খবর পেয়ে হাসপাতালে ছুটে গিয়ে সুদীপ রায় বর্মন এর শারীরিক অবস্থার খোঁজখবর নেন। তিনি জানান এ ঘটনায় নিন্দা জানানোর ভাষা নেই। এটি চরম বর্বরতা ছাড়া আর কিছু না। মুখ্যমন্ত্রীর কাছে দাবি জানানো হচ্ছে যাতে ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করা হয়। 

কংগ্রেসের পক্ষ থেকে দাবি উঠেছে বিষয়টি তদন্ত করে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়। কিন্তু একজন হেভিওয়েট নেতৃত্ব এভাবে আক্রান্তের ঘটনায় তীব্র গুঞ্জন সৃষ্টি হয়েছে রাজনৈতিক মহলের। প্রশ্ন হচ্ছে তার অঙ্গুলিহেলনে এ ধরনের ঘটনা রাজ্যের ইতিহাসে ঘটে গেল। নির্বাচনের প্রাক্ লগ্নে একজন প্রার্থীকে বাইক বাহিনী দিয়ে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে শয্যাশায়ী হতে হয়েছে। তাহলে সাধারন মানুষের এবং বিরোধী দলের কর্মী-সমর্থকদের নিরাপত্তা কোথায় গিয়ে দাঁড়াবে তা নিয়ে জনমনে সৃষ্টি হয়েছে প্রশ্ন।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য